দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পরিবেশ উন্নয়ন কমিটির

Mohanagar_Poribesh_141624187

চটগ্রামঅফিস: বেঙ্গুঅফিসরা বোয়ালখালী খালের রেল সেতুটি পাঁচ বছর আগেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছিল।কিন্তু কর্তৃপক্ষের অবহেলায় সেটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছে পরিবেশ উন্নয়ন কমিটি।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রধানকালে এ অভিযোগ করেন কমিটির চেয়ারম্যান মো. আবু সুফিয়ান। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিনের মাধ্যকে এ স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর দুর্নীতির কারণে ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছে অভিযোগ করে আবু সুফিয়ান বলেন, এপ্রিল মাসে রেল লাইন মেরামত করা হলেও সেতুর কাজ করা হয়নি। শুক্রবারের ওই দুর্ঘটনায় ইঞ্জিনসহ ৪টি তেলবাহী ওয়াগন বোয়ালখালী খালে পড়ে যায়। তা দ্রুত কর্ণফুলী ও হালদা নদীতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যয় ঘটে।

চট্টগ্রাম রেল কর্তৃপক্ষের অবেহলা ও দুর্নীতি খতিয়ে দেখা জরুরি উল্লেখ করে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হলে সচেতন সমাজ তা মানবে না। ৭ দিনেও রেল চলাচল স্বাভাবিক না হওয়া এবং দুর্ঘটনার সঙ্গে সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সেতু ভেঙে তেলবাহী ওয়াগন খালে পড়ে যাওয়ার ঘটনা তদন্তে বেসরকারিভাবে চট্টগ্রাম মহানগরী পরিবেশ উন্নয়ন কমিটির পক্ষ থেকে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, লিয়াকত আলী, নেওয়াজ খান, আনিস চৌধুরী রাজন, নুরুল ইসলাম রনি গোমেজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন স্মারকলিপি গ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দপ্তরে পাঠানোর আশ্বাস দেন।