সেতুতে বাড়তি টোল কমানোর সিদ্ধান্ত এ মাসেই: নৌ মন্ত্রী

মর্নিংসান প্রতিবেদন:
চট্টগ্রাম বন্দরের রেস্ট হাউজে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান সড়ক-মহাসড়কে সেতুতে বর্ধিত টোল কমানোর সিদ্ধান্ত চলতি মাসের মধ্যে হবে বলে জানিয়েছেন ।

রোববার (১৬ আগস্ট) মন্ত্রী এ কথা জানিয়েছেন।

বৈঠক শেষে মন্ত্রী বলেন, সেতুর টোল বাড়ানোর পর বিভিন্ন দিক থেকে আমি বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ পাচ্ছি। আমি এ বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। মন্ত্রী নিজেও টোল কমানোর বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছেন। ২১ আগস্ট মন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে বৈঠকে বসব। চলতি মাসের মধ্যে টোল কমানোর সিদ্ধান্ত আসবে।

২০১৪ সালের ২৪ মার্চ মন্ত্রিসভায় টোল নীতিমালা অনুমোদনের পর সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের অধীন ৫১ সেতু, ৪৫ ফেরিঘাট ও তিন মহাসড়কে সেতুতে বর্ধিত টোল আদায়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এদিকে চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি থেকে পর্যায়ক্রমে এসব সেতুতে অভিন্ন টোল কার্যকর করা হয়।

শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর নৌ পরিবহন মন্ত্রী চট্টগ্রাম বন্দরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসেছেন।

বৈঠক সম্পর্কে মন্ত্রী জানান, সম্প্রতি একনেকের সভায় চট্টগ্রাম বন্দরে যন্ত্রপাতি ক্রয় করার জন্য ২৪৮ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। সেই টাকা দিয়ে ২০টি ড্রেজার আর ১০টি নতুন গ্যান্ট্রি ক্রেন কেনা হবে। পুরনো যন্ত্রপাতির বদলে আরও নতুন নতুন যন্ত্রপাতি বন্দরে আনা হবে।

এসব বিষয়ে কর্মকর্তাদের মতামত নেয়ার জন্য বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে বলে মন্ত্রী জানান।

কর্ণফুলীতে ঝুলে থাকা ক্যাপিটার ড্রেজিং প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে আদালতে মামলা বিচারাধীন আছে।আদালতের কোন সিদ্ধান্ত না পাওয়ায় আমরা এগুতে পারছিনা।

নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি।