মর্নিংসান২৪ডটকম Date:২৬-০৮-২০১৫ Time:৭:০৫ অপরাহ্ণ


দেশের সর্ববৃহৎ পাইকারী বাজার খাতুনগঞ্জ পরিদর্শনে টিসিবি চেয়ারম্যান

দেশের সর্ববৃহৎ পাইকারী বাজার খাতুনগঞ্জ পরিদর্শনে টিসিবি চেয়ারম্যান

চট্টগ্রাম নিউজ প্রতিবেদন:
গত ঈদুল ফিতরের পর থেকেই ঊর্ধ্বম‍ুখী পেঁয়াজের দাম। সম্প্রতি খুচরা বাজারে এর দাম কেজি প্রতি ৮০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত উঠেছিলো খাতুনগঞ্জে। এদিকে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে স্বস্তি ফেরা শুরু করলেও বাড়ছে আদা ও রসুনের দাম। মাত্র দুদিনের ব্যবধানে পাইকারি বাজারে কেজি প্রতি আদার দাম বেড়েছে ২০-২৫ টাকা। রসুনের দাম বেড়েছে ৫-১০ টাকা। পাইকারি আড়তগুলোতে আদা ও রসুনের সরবরাহ সংকট থাকায় এ মূল্যবৃদ্ধি বলে জানান ব্যবসায়ীরা। কাঁচাপণ্যের সর্ববৃহৎ পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে খোজ নিয়ে এমন খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার খাতুনগঞ্জ কাঁচা পণ্যের পাইকারি বাজারে আদা বিক্রি হয়েছে কেজি প্রতি ৮০ থেকে ৮৫ টাকায়। যা দুইদিন আগেও ছিল ৬০ থেকে ৬৫ টাকা। আমদানি করা রসুন বিক্রি হচ্ছে ৯২ থেকে ৯৫ টাকা কেজিতে। যা এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছিল ৮৮ থেকে ৯০ টাকায়। দেশি রসুন বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকায়। যা এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছে ৪৫ থেকে ৬০ টাকায়।

মেসার্স সোনালী ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী আবছার উদ্দিন বলেন, আমদানিকারকরা সম্প্রতি অতিরিক্ত আদা-রসুন এনে লোকসানে পড়েন । তাই স্থানীয় কেউ এবার আদা-রসুন আমদানি করেনি। কমিশন এজেন্টের মাধ্যমে পাইকারি বাজারে আদা-রসুন সরবরাহ হচ্ছে। ফলে বাজারে সরবরাহ সংকট তৈরি হয়েছে।

মেসার্স এ আর ট্রেডিংয়ের সত্ত্বাধিকারী আবুল হোসেন বলেন, সরকারের কোন সুনির্দিষ্ট বাজার নীতি না থাকার কারণে বাজারে এ সংকট তৈরি হয়। বাজারে কোন পণ্যের কি পরিমাণ চাহিদা আছে, কতটুকু দেশে উৎপাদন হয়, কি পরিমাণ আমদানি করতে হবে তার কোন সুনির্দিষ্ট হিসাব সরকারের কাছে নেই। ফলে বাজারে অস্থিতিশীলতা তৈরি হয়।

তিনি বলেন, যখন কাঁচাপণ্য (পেঁয়াজ, রসুন, আদা ইত্যাদি) দেশে উৎপাদন হয়, তখন আমদানিকারকরা দাম কমিয়ে দেন। ফলে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে এসব চাষ থেকে বিরত থাকে।

এসব সমস্যা কাটিয়ে ওঠা দরকার জানিয়ে তিনি আরো বলেন, দেশে উৎপাদন মৌসুমে এসব কাঁচাপণ্য আমদানি বন্ধ করে দিতে হবে। এছাড়া কাঁচাপণ্য মজুদের জন্য সংরক্ষণাগার তৈরি করতে হবে।