মক্কার ক্রেন দুর্ঘটনা ‘আল্লাহর কাজ’:প্রকৌশলী

মক্কার ক্রেন দুর্ঘটনা ‘আল্লাহর কাজ’:প্রকৌশলী
মক্কার ক্রেন দুর্ঘটনা ‘আল্লাহর কাজ’:প্রকৌশলী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ডেভেলপার কোম্পানির একজন প্রকৌশলী মক্কার মসজিদ আল-হারামের ক্রেন ছিঁড়ে ১০৭ হজযাত্রীর মৃত্যুকে ‘আল্লাহর কাজ’ বলে দাবি করেছেন ।

সাবেক আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের পরিবারের মালিকানায় রয়েছে বিনলাদেন গ্রুপ।

শুক্রবারের ওই ভয়াবহ দুর্ঘটনার জন্য সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ প্রাথমিকভাবে প্রচণ্ড ঝড় ও প্রবল বাতাসকে দায়ী করলেও এ ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
ওই ঘটনায় দুই শতাধিক হজযাত্রী আহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ৪০ জন বাংলাদেশিও রয়েছেন।

মসজিদ আল-হারামের উন্নয়নের কাজ করছে বিনলাদেন গ্রুপ।

তাদেরই একটি লাল ও সাদা ক্রেন ছিঁড়ে পড়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

বিন লাদেন গ্রুপের সংশ্লিষ্ট একজন প্রকৌশলী এএফপিকে বলেন, সেখানে ওই ক্রেনটির মত বহু ক্রেন ৩-৪ বছর ধরে ছিল, কিন্তু কোনো সমস্যা হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, ‘এটা আদৌ কারিগরি সংক্রান্ত কোনো ইস্যু নয়। আমি বলতে পারি যে, যা ঘটেছে তাতে মানুষের কোনো হাত নেই। এটা ছিল আল্লাহর কাজ। আমার জ্ঞানমতে, এখানে আদৌ কোনো মানবিক ত্রুটি ছিল না।’

হজ মৌসুমের সময় এ ঘটনা ঘটায় সৌদি কর্তৃপক্ষের সমালোচনা হচ্ছে। অনেকে সৌদি কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকেও দায়ী করছেন।

সৌদি বাদশা সালমান এ ঘটনা তদন্তের এবং তার ফল প্রকাশের ঘোষণা দিয়েছেন।

ওই প্রকৌশলী দাবি করেন, অত্যন্ত পেশাদারি উপায়ে ক্রেনটি স্থাপন করা হয়েছিল যাতে মুসল্লিদের কোনো কষ্ট না হয়।

তবে যেখানে এটি স্থাপন করা হয় সেখানে হাজার হাজার মুসল্লি সমবেত হন বলে কাজ করা খুবই কঠিন।

প্রতি বছর হজে আসা মুসলমানের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় মুসলমানদের প্রধান এই মসজিদটির যেখানে কাবা শরীফ অবস্থিত এবং মুসলমানরা এদিক ফিরে নামাজ পড়েন, বর্ধিত করার জন্য কয়েক বছর আগে কাজ শুরু করে সৌদি সরকার।

বর্ধিতকরণের কাজ শেষ হলে এর আকার দাঁড়াবে ৪৩ লাখ বর্গফুটে যাতে একবারে ২২ লাখ লোকের সংকুলান হবে।