চমেক হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে থাকা ছিনতাইকারী পলায়ন

চমেক হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে থাকা ছিনতাইকারী পলায়ন
চমেক হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে থাকা ছিনতাইকারী পলায়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে থাকা এক ছিনতাইকারী পালিয়েছে। ছিনতাইকারী আসামী হলেন সৈয়দ আলম (৩৫)।
সৈয়দ আলম বোয়ালখালী উপজেলার পূর্ব গোমদন্ডী গ্রামের নবাব সওদাগর বাড়ির সামশুল আলমের ছেলে।

এদিকে গ্রেপ্তারের পর চিকিৎসাধীন থাকা সৈয়দ আলম (৩৫) এর পালানোর ঘটনায় জেলা পুলিশের একজন এএসআই এবং একজন কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) তাদের সাময়িক বরখাস্তের আদেশে স্বাক্ষর করেছেন চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার (এসপি) একেএম হাফিজ আক্তার।

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া দুই পুলিশ সদস্য হলেন, এএসআই ফয়জুর রহমান ও কনেস্টেবল ফয়সাল আহমেদ।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ নাঈমুল হাছান বলেন, দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে দু’জনকে শুক্রবার রাতে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছিল। শনিবার এসপি স্যার তাদের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দিয়েছেন।

এর আগে শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে চমেক হাসপাতালের ২৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে সৈয়দ আলম পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায়।

সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী দলের নেতা সৈয়দ আলম, সদস্য আলমের স্ত্রী রোকসানা বেগম (২৬) এবং সহযোগী আব্দুল গফুর বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ফটিকছড়িতে গণপিটুনির শিকার হয়েছিল। গুরুতর আহত সৈয়দ আলমকে চমেক হাসপাতালের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল।