টনক নড়ল পুলিশের,মহাসড়কে অটোরিক্সা, সাত ওসিকে নোটিশ

টনক নড়ল পুলিশের,মহাসড়কে অটোরিক্সা, সাত ওসিকে নোটিশ
টনক নড়ল পুলিশের,মহাসড়কে অটোরিক্সা, সাত ওসিকে নোটিশ

এ,এইচ,এম সুমন চৌধুরী চট্টগ্রাম:
১ আগস্ট থেকে মহাসড়কে অটোরিকশা চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। অথচ নিষেধাজ্ঞাার পরও মহাসড়কে পুলিশের নাকের উপর দিয়ে দাবিয়ে চলছে অটোরিক্সা ।মনেহয় যেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞাও মনে নেই তাদের। তবে হঠাৎ করেই যেন মনে পড়ল সেই নিষেধাজ্ঞার কথা।আর তাই
মহাসড়কে অটোরিক্সা চলাচল বন্ধ না হওয়ায় চট্টগ্রামের সাত ওসিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন পুলিশ সুপার (এসপি) একেএম হাফিজ আক্তার। গত বুধবার (৭ অক্টোবর) পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে নোটিশগুলো থানায় পাঠানো হয়েছে।

সাত ওসি হলেন, সীতাকুণ্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসান, মিরসরাই থানার ওসি ইমতিয়াজ ভূঁইয়া, জোরারগঞ্জ থানার ওসি লিয়াকত আলী, পটিয়া থানার ওসি রেফায়েত উল্লাহ, চন্দনাইশ থানার ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়া, সাতকানিয়া থানার ওসি খন্দকার ফারুক আহমেদ এবং লোহাগাড়া থানার ওসি মোহাম্মদ শাহজাহান।

নোটিশে ওসিদের মহাসড়কে অটোরিক্সা চলাচল বন্ধে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে আরও কঠোর এবং আন্তরিক হওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার একেএম হাফিজ আক্তার এ প্রসঙ্গে বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি, মহাসড়কে পুরোপুরিভাবে অটোরিক্স ‍চলাচল বন্ধ হয়নি। এজন্য গত মঙ্গলবার আমি ওসিদের শোকজের মাধ্যমে সতর্ক করার সিদ্ধান্ত নিই। বুধবার এ সংক্রান্ত চিঠি থানায় পাঠিয়ে দিয়েছি। ওসিদের আন্তরিক করার জন্য মূলত কারণ দর্শানোর চিঠি দিয়েছি।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক গেছে মিরসরাই, সীতাকুণ্ড, জোরারগঞ্জ থানা এলাকার মধ্য দিয়ে। আর পটিয়া, চন্দনাইশ, লোহাগাড়া ও সাতকানিয়া থানা এলাকা দিয়ে গেছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক।