মর্নিংসান২৪ডটকম Date:১১-০৭-২০১৪ Time:৭:২৪ অপরাহ্ণ


শফিক রেজা (ছদ্মনাম) দুই বছর ধরে মালয়েশিয়ায় কাজ করছেন দালান নির্মাণের। এসেছেন কুয়ালালামপুরের চোউকিট এলাকায়। দেশে থাক স্ত্রীর জন্য একটি মোবাইল কিনবেন। সারি সারি দোকান। অনেক সেট দেখার পর পছন্দ হলো একটি। দেখতে চাইলেন।

Mala_bg_296092890মোবাইল দোকানদার জিজ্ঞেস করেন ‘তোমার দেশ কোথায়?’। রেজা জানালেন, বাংলাদেশ। আচ্ছা, তোমার পাসপোর্ট টা দাও, এই মোবাইল সেট দেখতে হলে তোমার পাসপোর্ট জমা রাখতে হবে। আমরা বিদেশিদের কাছে মোবাইল দেখানোর আগে পাসপোর্ট জমা রাখি।

পাসপোর্ট বের করে দিলেন রেজা। এরপর দোকানদার তাকে মোবাইলটি দেখতে দেন। কিছুক্ষণ পর রেজা মোবাইলটি ফেরত দিয়ে বললেন, এটি তার পছন্দ নয়। সঙ্গে সঙ্গে দোকানদার দাবি করলেন, তার পাসপোর্ট ফেরত পেতে হলে তাকে মোবাইলটি কিনতে হবে। নিরুপায় হয়ে ৫০০ রিঙ্গিত দিয়ে (বাংলাদেশি টাকা ১২ হাজার ৫০০) শেষ পর্যন্ত তাকে মোবাইল কিনে ফিরতে হলো।

এভাবে বাংলাদেশি শ্রমিকদের সরলতার সুযোগ নিয়ে প্রচুর টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন মালয়েশিয়ান এক অসৎ চক্র। আর এই ফাঁদে পা রেখে বাংলাদেশিরা হারাচ্ছেন তাদের কষ্টের উপার্জিত টাকা। মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের চোউকিট ছাড়াও এ ঘটনা বেশি ঘটে, কোটারায়া , মাইডিন, মসজিদ ইন্ডিয়া, কাজাং, ব্রিকফিল্ড এলাকায়।