রোববারও চসিক ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে

রোববারও চসিক ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে
রোববারও চসিক ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে
রোববারও চসিক ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াবে

চট্টগ্রাম অফিস: শনিবার সারা দেশে ৬-৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হলেও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকায় রোববারও এ সেবা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। নির্দিষ্ট বয়সের কোনো শিশু যাতে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানোর কর্মসূচি থেকে বাদ না পড়ে সে লক্ষ্যে মেয়র এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ডিসি হিল সংলগ্ন লাভ লেনের ন্যাশনাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সকালে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের উদ্বোধনকালে মেয়র আ জ ম নাছির এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, স্বাস্থ্যসেবা প্রত্যেক শিশুর মৌলিক অধিকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সর্বস্তরের নাগরিকদের জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করেছেন। আর তাই বর্তমানে বাংলাদেশে শিশুমৃত্যু ও মাতৃমৃত্যুর হার কমেছে। মানুষের গড় আয়ুও বেড়ে চলেছে।

এবার চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৪১ ওয়ার্ডে স্থায়ী-অস্থায়ী মিলে ১ হাজার ৩২৪টি কেন্দ্রে ৬-১১ মাস বয়সী ৭২ হাজার শিশুকে নীল রঙের এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ৪ ‍লাখ ৬০ হাজার শিশুকে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

মেয়র বলেন, প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সিলেবাস নির্ভর পাঠদানের পাশাপাশি নীতি নৈতিকতা ও মূল্যবোধের ওপর শিক্ষা দিতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, নিম্নমধ্য আয়ের বাংলাদেশকে উন্নত বিশ্বের সাথে সংযুক্ত করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে মেধা ও বুদ্ধিকে কাজে লাগাতে হবে। এ লক্ষ্যে দল-মত-জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে দায়িত্বশীল ও দেশপ্রেমিক হতে হবে।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি শৈবাল দাশ সুমনের সভাপতিত্বে চসিক স্বাস্থ্য বিভাগ আয়োজিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, স্বাস্থ্য ও শিক্ষাসংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, চসিক সচিব রশিদ আহমদ, ডেকোরেশন মালিক সমিতির সভাপতি সাহাবউদ্দিন, ন্যাশনাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মিসেস কায়সারা বেগম। ডা. মোহাম্মদ আলীর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন চসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী।

মেয়র ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ন্যাশনাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিটি কক্ষে সিলিং ফ্যান লাগানো এবং একবেলা ভালো নাশতা খাওয়ানোর জন্য নগদ অর্থ প্রদান করেন। এছাড়া সাহাবউদ্দিন ন্যাশনাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে রং করার দায়িত্ব নেন।