পানির মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে ক্যাব

 পানির মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে ক্যাব
পানির মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে ক্যাব

চট্টগ্রাম অফিস :
৭ নভেম্বর চট্টগ্রাম ওয়াসার ৩০তম বোর্ড সভায় আগামী ১ জানুয়ারি থেকে ৫ শতাংশ মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব অনুমোদন হয়েছিল। কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)ওয়াসার পানির মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে চট্টগ্রাম মহানগরীতে পর্যাপ্ত পানি সরবরাহের দাবি জানিয়েছে।

রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ক্যাবের চট্টগ্রাম বিভাগীয় ও মহানগর কমিটির নেতারা অবিলম্বে মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।
বিবৃতিতে সই করেন ক্যাব কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি সদস্য এসএম নাজের হোসাইন, ক্যাব চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, ক্যাব মহানগরের সভাপতি জেসসিন সুলতানা পারু, সাধারণ সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু প্রমুখ।

ক্যাব নেতারা বলেন, চট্টগ্রাম ওয়াসার সরবরাহ করা পানির ৮৮ শতাংশই আবাসিক গ্রাহক। চট্টগ্রাম ওয়াসা দিনে মাত্র ২১ মিলিয়ন লিটার পানি সরবরাহ করতে পারে, যা চাহিদার মাত্র ৪২ শতাংশ। যে কারণে নগরীর অধিকাংশ এলাকায় পানির জন্য হাহাকার চলছে। আর চট্টগ্রাম ওয়াসা পানির প্রাপ্যতা নিশ্চিত না করে নতুন নতুন প্রকল্পের কথা বলে নগরবাসীকে বারবার বিভ্রান্ত করছে এবং মুল্যবৃদ্ধির কথা বলে প্রকারান্তরে ওয়াসার অভ্যন্তরে পানি চুরি ও মিটার রিডারদের অনিয়মকে প্রশ্রয় দিচ্ছে। চট্টগ্রাম ওয়াসার ৬১ হাজার ৭১৭ জন আবাসিক গ্রাহক এবং ৭ হাজার ৩৮৭ জন বাণিজ্যিক গ্রাহক।

তারা বলেন, ক্যাব প্রতিনিয়তই দাবি জানিয়ে আসছে পানি অপচয় রোধ, চুরি বন্ধ, বিলিং ব্যবস্থার ত্রুটি দূর ও সিস্টেম লস বন্ধ না করে উৎপাদন খরচ বেড়েছে অজুহাতে ভোক্তাদের উপর পানির মুল্য বাড়ানোর প্রস্তাব কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। চট্টগ্রাম ওয়াসার অধিকাংশ গ্রাহকই সাধারণ মধ্যবিত্ত ও নিন্মআয়ের মানুষ। তারা বিদ্যুৎ, গ্যাস, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও সেবার মুল্যবৃদ্ধির যন্ত্রণায় কাতর, সেখানে নতুন করে পানির মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় আরও বাড়িয়ে দেবে।