শিশু অপহরণের অভিযোগে রহিমা ডাকাতসহ পাঁচজনের যাবজ্জীবন

রহিমা ডাকাতসহ পাঁচজনের যাবজ্জীবন
রহিমা ডাকাতসহ পাঁচজনের যাবজ্জীবন

চট্টগ্রাম অফিস :
বাঁশখালীর আলোচিত রহিমা ডাকাতসহ পাঁচ আসামিকে শিশু অপহরণের অভিযোগে চট্টগ্রামের একটি আদালত যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন । একই রায়ে আদালত তাদের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭ ধারায় রোখসানা ও রহিমা ডাকাতকে এবং ৮ ধারায় মামুনুর রশিদ, করিম ডাকাত ও জালাল উদ্দিনকে যাবজ্জীন কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত পাঁচজন হল, দুর্ধর্ষ ডাকাত রহিমা বেগম ওরফে রহিমা বেগম, রোখসানা, মামুনুর রশিদ, জালাল উদ্দিন এবং করিম ডাকাত। এদের মধ্যে মামুনুর রশিদ হাজতে আছে। বাকি আসামিরা পলাতক আছে।

১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার চট্টগ্রামের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মো.রেজাউল করিম চৌধুরী এ রায় দিয়েছেন। নগরীর চান্দগাঁও থেকে ফারিয়া আফরিন ঐশী (৫) নামে পাঁচ বছরের এক শিশুকে অপহরণের মামলায় আদালত এ রায় দিয়েছেন।

ট্রাইব্যুনালের পিপি অ্যাডভোকেট জেসমিন আক্তার বলেন, অপহরণের অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের পৃথক দু’টি ধারায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে। এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ প্রত্যাশিত ন্যায়বিচার পেয়েছে।

বিচার শুরুর মাত্র দুই মাসের মধ্যে রায় ঘোষণা করে আদালত নজিরবিহীন রেকর্ড গড়েছেন বলে মন্তব্য করেন পিপি।

আদালতের রায়ে খালাস পাওয়া নূরুল বশরও বর্তমানে পলাতক আছে।

অপহরণের শিকার ফারিয়া আফরিন ঐশী নগরীর চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার ১১০ নম্বর সড়কের একটি বাড়ির বাসিন্দা মো.জাহেদ হোসেনের মেয়ে।