মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০৫-০৯-২০১৪ Time:৯:২৮ অপরাহ্ণ


1409921679
ঢাকা অফিস : মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর ডেপুটি চিফ অব স্টাফ এয়ার ভাইস মার্শাল এ কে খন্দকার বীর উত্তম তার সদ্য প্রকাশিত ১৯৭১ : ভেতরে বাইরে গ্রন্থে দাবি করেছেন ঐতিহাসিক সাতই মার্চ বঙ্গবন্ধুর ভাষণের শেষ শব্দ ছিল ‘জয় পাকিস্তান’। এ নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘সাতই মাচের্র বঙ্গবন্ধুর ভাষণের শেষ শব্দ ছিল “জয় বাংলা”। স্বাধীনতার ৪৩ বছর পরে উনি এ কথাটা কোথায় পেলেন, বোধগম্য নয়। ওই জনসভায় ৭ লাখ জনতা ছিল। তাদের কেউ এই শব্দ শোনেনি। একজন সামরিক কর্মকর্তা হিসেবে তিনি ক্যান্টনমেন্টে বসে কীভাবে তা আবিষ্কার করলেন, অবাক ব্যাপার। কার উদ্দেশ্যে, কোন ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে, কার প্ররোচনায় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করা হচ্ছে, সেটা দেখার বিষয়। তাকে আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন।’
আল-কায়েদার প্রধান আয়মান আল জাওয়াহিরি একটি ভিডিও-বার্তায় ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ-ভারতসহ ভারতীয় উপমহাদেশের বিভিন্ন দেশে ঘাঁটি গড়তে চাইছে জঙ্গিবাদী সংগঠন আল-কায়েদা। এই ঘোষণার সঙ্গে বিএনপি ও জামায়াতের সম্পৃক্ততা আছে- উল্লেখ করে হানিফ বলেছেন, ‘এই বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে প্রমাণিত হয় যে তারা দীর্ঘদিন ধরেই এই চেষ্টা করে আসছিল। ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাংলাদেশে জঙ্গিদের চারণভূমিতে পরিণত হয়েছিল। বাংলাদেশকে একটি জঙ্গি রাষ্ট্র বানানো হয়েছিল। সেই দিক থেকে তালেবান, আল-কায়েদা অথবা অন্য কোনো জঙ্গি সংগঠন বাংলাদেশকে তাদের চারণভূমি হিসেবে মনে করবে, এটাই স্বাভাবিক। গত পাঁচ বছরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই দেশে যখন জঙ্গি নির্মূলের অভিযান চলছে, ঠিক সেই সময় বিএনপি ও জামায়াত আবার নতুন করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির জন্য আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে। আর তারা যখন সরকার পতনের জন্য আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে, সেই সময় আল-কায়েদা প্রধান জাওয়াহিরি নতুন করে তাদের ঘাঁটি স্থাপনের জন্য যে ঘোষণা দিয়েছে এই দুটোর মধ্যে যোগসূত্র রয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখার দরকার। আমার বিশ্বাস, বিএনপি রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকতে জঙ্গিদের সঙ্গে যে সম্পর্ক গড়েছিল সেই সম্পর্কের ধারাবাহিকতা হিসেবেই আল-কায়েদার এই ঘোষণা।’
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠনের পেছনে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করার ক্ষেত্রে আইএসআই যে চক্রান্ত করে যাচ্ছে সেটার রুট হিসেবে ভারতের দু-একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে ব্যবহার করছে।
শুক্রবার দুপুরে দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে কুষ্টিয়া শহরের নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি তাইজাল আলী খানসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।