মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০৯-০৯-২০১৪ Time:১০:০৭ অপরাহ্ণ


 

 

:train_19928

তনিমা চৌধুরী : ঈদুল আযহা উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের বাড়ি ফেরা নির্বিঘ্ন করতে পাঁচ জোড়া বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১৩০টি অতিরিক্ত কোচ এবং ৩০টি অতিরিক্ত ইঞ্জিন।
এছাড়া ঈদে যাত্রীদের মাঝে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি করবে। অগ্রিম টিকেট ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে পাওয়া যাবে। এদিকে টিকেট কালোবাজারি রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা।
জানা গেছে, বিশেষ ট্রেন পরিচালনা ও স্ট্যান্ডার্ড কম্পোজিশন অনুযায়ী ট্রেন পরিচালনার জন্য চট্টগ্রামের পাহাড়তলী এবং সৈয়দপুর ওয়ার্কশপ থেকে ঈদে ১৩০টি কোচ সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. তাফাজ্জল হোসেন জানান, ২৬ সেপ্টেম্বর টিকেট বিক্রির প্রথম দিনে বিক্রি হবে ১ অক্টোবরের আগাম টিকেট। পরবর্তীতে এই ধারাবাহিকতায় ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পাওয়া যাবে ৫ অক্টোবরের আগাম টিকেট। একজন যাত্রী সর্বোচ্চ ৪টি করে টিকেট কিনতে পারবে। ঈদ উপলক্ষে বিশেষ রেলসার্ভিস চলবে ১ থেকে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত। ঘরমুখো মানুষের অতিরিক্ত চাপ সামাল দিতে রেলসার্ভিসে যুক্ত হবে ৫ জোড়া স্পেশাল রেলগাড়ি।
তিনি জানান, এর মধ্যে চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুর চলবে দুই জোড়া, ঢাকা থেকে দেওয়ানগঞ্জ চলবে একজোড়া, ঢাকা থেকে পার্বতীপুর চলবে এক জোড়া, ঢাকা থেকে খুলনা চলবে এক জোড়া। এই বিশেষ ট্রেনগুলো ঈদের তিনদিন আগে থেকে চলবে এবং ঈদের পরে ৭ দিন চলবে। এছাড়া শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত আদায়ের জন্যও বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে রেলভবনের সম্মেলন কক্ষে এই ব্যাপারে রেলমন্ত্রী বৈঠক করেছেন। এক প্রেস ব্রিফিংয়ে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক জানান, ঈদে ঘরমুখো মানুষের বাড়তি চাপ সামাল দিতে এবারও ৫ জোড়া বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। টিকেট নিয়ে যাতে কোনো ধরনের কালোবাজারি না হয়, এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। রেলমন্ত্রী বলেন, যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে।