নড়াচড়া কম করার কারণে সিনোভায়াল শুকিয়ে যায়

নড়াচড়া কম করার কারণে সিনোভায়াল শুকিয়ে যায়
নড়াচড়া কম করার কারণে সিনোভায়াল শুকিয়ে যায়

ডেস্ক রির্পোট :
বয়স যত বাড়তে থাকে ততই নড়চড়া কমেতে থাকে এবং বসে থাকা হয় বেশি।বসে থাকা বা নড়াচড়া কম করার কারণে সিনোভায়াল নামে এক ধরনের তরল পদার্থ শুকিয়ে যায়। যার কারণে হাঁটু শক্ত হয়ে যায়, ব্যথা করে এবং মাঝে মাঝে ফুলে যায়।

লক্ষণ: ঘুম থেকে ওঠার পর বা অনেকক্ষণ বসে থাকার পর উঠে দাঁড়ালে হাঁটুতে ব্যথা বা শক্ত হয়ে যেতে পারে। বিশেষ করে থিয়েটার বা বিমানের আঁটসাঁট সিট থেকে উঠার পর। হাঁটুর সামনের দিকে আপনি ব্যথা অনুভব করতে পারেন। আর হাঁটু বাঁকা করলেই ব্যথা তীব্র আঁকার ধারণ করতে পারে।

প্রতিরোধ: হাঁটুর ব্যথা প্রতিরোধে পায়ের শক্তি বাড়ানো গুরুত্বপূর্ণ। শক্ত পেশী হাঁটুর ভর নিতে পারে এবং ব্যথা প্রতিরোধ করতে পারে। দাঁতের মতো পায়েরও যত্ন নিতে হয়। এক মিনিট বাম পায়ে এবং এক মিনিট ডান পায়ে ভর দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকুন। প্রতিদিন এই ব্যায়ামটি করুন।

এতকাল ধরে চিকিৎসকরা বলে আসছেন, যাদের হাঁটু শক্ত হয়ে যাওয়ার সমস্যা আছে তারা অধিক বিশ্রামে থাকবেন। কিন্তু এখন চিকিৎসকরা পরামর্শ দেন, হাঁটা চলাফেরা করার জন্য। প্রতিদিন ২০ মিনিট দ্রুতগতিতে হাঁটুন। চেষ্টা করুন সামান্য উঁচু পাহাড়ি রাস্তায় হাঁটতে। এতে পা শক্তিশালী হবে।আবার হাঁটুতে ব্যথা হলে গরম-ঠাণ্ডা থেরাপি ব্যবহার করুন। পাঁচ মিনিট আইস প্যাক ব্যবহার করুন। এরপর হিট প্যাক (গরম পানির বোতল, হিট প্যাডস) ২০ মিনিট ব্যবহার করুন।