‘সমাজ সব কিছু ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় থাকবে’-প্রতিমন্ত্রী

‘সমাজ সব কিছু ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় থাকবে’-প্রতিমন্ত্রী
‘সমাজ সব কিছু ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় থাকবে’-প্রতিমন্ত্রী

চট্টগ্রাম অফিস :

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন,‘ আগামীতে রাজপথ থেকে কলকারখানা, সমাজ সব কিছু ইন্টারনেট সংযোগের আওতায় থাকবে। আমরাতো এখন ডিজিটাল বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা মানুষের সাথে ইন্টারনেট সংযোগটা স্থাপন করেছি। কিন্তু যন্ত্রের সাথে ইন্টারনেট সম্পর্ক স্থাপন, ফ্যাক্টরীর সাথে, সমাজের সাথে স্থাপন এ কাজ গুলো কিন্তু বাকি রয়ে গেছে। বাংলাদেশের সমস্ত ফ্যাক্টরী, বিজনেস, কমিউনিটি এবং প্রত্যেকটি স্থান রাজপথ কানেক্টড থাকবে ইন্টারনেটের সাথে।’

 এই সময় তিনি বাংলাদেশের জন্য তৈরী বিশেষায়িত ওয়েবসাইট ‘ইন্টারনেট অফ থিংস (আইওটি)’র ডেমো পর্যবেক্ষণ করেন। এর আগে চট্টগ্রামে এরিকসনের অফিস উদ্ভোধন করেন প্রতিমন্ত্রী। উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিক পরিকল্পনা হচ্ছে ৩০শে এপ্রিলের মধ্যে নিবন্ধন শেষ করবো। তারপর যেটি করবো, আমরা ক্রমান্বয়ে বিভিন্ন মোবাইল ফোনে সে সিম গুলো রেজিস্ট্রি হয়নি সেখানে একটি সংকেত পাঠাবো। যেমন কয়েক ঘন্টার জন্য একটু বন্ধ থাকবে। এভাবে ক্রমান্বয়ে এক পর্যায়ে সেটি বন্ধ হয়ে যাবে।’

 তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এটি করছি এ কারণে যে, তাকে (গ্রাহক) ইঙ্গিত প্রদান করলে বা একটু কয়েক ঘন্টার জন্য বন্ধ রাখলে তিনি গিয়েই এই সিমটি নিবন্ধন করে নেবেন।’

 টেলিটককে প্রতিযোগিতামূলক বাজারের জন্য উপযুক্ত করে গড়ে তোলা হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে টেলিটকের গ্রাহক ও সিম বিক্রি বৃদ্ধি পাওয়ায় সারাদেশে যাতে টেলিটকের নিরবিচ্ছিন্ন নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে।’

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেনের রাষ্ট্রদূত ইওহান ফ্রিজেল, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ এবং এরিকসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।