বাংলাদেশের টার্গেট ১৪৬

বাংলাদেশের টার্গেট ১৪৬
বাংলাদেশের টার্গেট ১৪৬

ক্রীড়া ডেস্ক: প্রথম তিন ম্যাচে হেরে আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে বাংলাদেশের। তাই এই ম্যাচটি কেবল বাংলাদেশের জন্য আনুষ্ঠানিকতাই।

তবে এই আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচেও বাংলাদেশের পাওয়ার আছে অনেক। আজ জিতলে টি-টোয়েন্টিতে কিউইদের বিপক্ষে পাওয়া যাবে টাইগারদের প্রথম জয়।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ১৪৫ রান। তাই বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে সান্ত্বনার জয় পেতে ১৪৬ রান করত হবে টাইগারদের।

আগে ব্যাটিংয়ে নেমে মুস্তাফিজের করা চতুর্থ ওভারের শেষ বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান হেনরি নিকোলস (৭)। মুস্তাফিজের করা নবম ওভারের শেষ বলে বোল্ড হয়ে যান নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন (৪২)। ১৫তম ওভারের পঞ্চম বলে কলিন মুনরোকে (৩৫) বোল্ড করেন আল-আমিন হোসেন। ১৬তম ওভারের চতুর্থ বলে দলীয় অধিনায়ক মাশরাফির বলে বোল্ড হয়ে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন কোরি অ্যান্ডারসন।

এরপর আসেন কাটার। তার করা ১৮তম ওভারের শেষ বলে শুভাগত হোমের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হোন গ্রান্ট এলিয়ট (৯)। ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আল-আমিনের দ্বিতীয় শিকার হন রস টেলর (২৮)। নিউজিল্যান্ড ইনিংসের শেষ ওভারে আবারও হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরী করেও সেটির দেখা পাননি মুস্তফিজ। বিশ্বমঞ্চে সেটি করতে পারলে দেশের হয়ে হ্যাটট্রিকের নতুন একটি ইতিহাস গড়তে পারতেন বিস্ময়বালক মুস্তাফিজ।

২০তম ওভারের চতুর্থ বলে মিচেল স্যান্টনারকে বোল্ড করেন মুস্তাফিজ। পঞ্চম বলে নাথান ম্যাককালমকেও বোল্ড করে ফেরানোর পর হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরী হয় মুস্তাফিজের। কিন্তু ওভারের শেষ বলটিকে ম্যাকক্ল্যানাগান ছক্কা মেরে তার সেই হ্যাট্রিকের আশাটি বিফলে দেন।