প্রধানমন্ত্রীর ১২ সফর সঙ্গীকে ভিসা দেয়নি ইতালি

image_102078_0ঢাকা অফিস॥ প্রধানমন্ত্রীর চার দিনের ইতালি সফরে দেশটির ভিসা পাননি তার ১২ সফরসঙ্গী। বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হয়ে তাদের ইতালির যাওয়ার কথা ছিলো। ঢাকাস্থ ইতালিয়ান দূতাবাসে বাতিল করা ১২ জনের ভিসার মধ্যে মিডিয়া টিমের ৯ জন এবং ব্যবসায়ী তিনজন রয়েছেন। মিডিয়া টিমে বাদ পড়া ভিসার মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীও রয়েছেন।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৬ ও ১৭ অক্টোবর এশিয়া ও ইউরোপ সম্মেলন (এএসইএম) এ যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে ১২৫ জনের বহর ঠিক করা হয়, যাদের মধ্যে কূটনীতিক, সরকারি কর্মকর্তা, ৭৪ জন ব্যবসায়ী ও মিডিয়া টিমের লোকজন রয়েছেন। কিন্তু শেষ মেষ ভিসা পেলেন না ১২ জন।কূটনীতিক সূত্র জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের চার মিডিয়া সদস্য দেশ ছাড়ার আগে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে ভিসার জন্য আবেদন না করায় তাদের ভিসা দেয়নি ইতালি দূতাবাস। আবেদনকারীদের নয়জন ২ অক্টোবর ভিসার জন্য আবেদন না করে সে আবেদন করেন ৮ অক্টোবর। তবে তিন ব্যবসায়ীর ভিসা কেন বাতিল করা হয়েছে তা জানা যায়নি।প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এক প্রভাবশালী কর্মকর্তা বলেছেন, ‘‘এটা মোটেও কাঙ্ক্ষিত না।” প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংসের এক শীর্ষ কর্মকর্তার গাফিলতির জন্যই মিডিয়া টিম ভিসা পায়নি বলে অভিযোগ করেন তিনি।ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট হারমান বেন রম্পুই ও ইতালির প্রেসিডেন্ট জোসে ম্যানুয়েল ব্যারেসোর আমন্ত্রণে মিলানের ১০ম এএসইম সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকাল দশটায় রওয়ানা করেছেন। এদিকে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে, ভিসা না পাবার ক্ষেত্রে ইতালি দূতাবাসের কোনো দোষ নেই। মিডিয়া টিমের সফরসঙ্গী হওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন নিতেই দেরি করা হয়েছে। সময়মতো তার কাছে তালিকা পৌঁছানো হয়নি। ভিসা না পাওয়া মিডিয়া টিমের কর্মকর্তা জানান, প্রধানমন্ত্রীকে ৩ অক্টোবর মিডিয়া টিমের তালিকা দেয়া হয় এবং তিনি সঙ্গে সঙ্গে তা অনুমোদন করেন।এদিকে পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হক প্রধানমন্ত্রীর সফর নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘‘যারা ভিসা পায়নি তারা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। আমাদের কাছে এ নিয়ে কোনো তথ্য নেই। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বৈশাখী টিভির প্রধান সম্পাদক ও সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, দৈনিক সংবাদ সম্পাদক আলতামাস কবির, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ুন এবং সিনিয়র সাংবাদিক আবু হাসান শাহরিয়ার ভিসা পাননি। এছাড়া বার্তা সংস্থা বাসসের এক প্রতিবেদক ও ফটোসাংবাদিক এবং ইউএনবি ও বিডিনিউজের দুই সাংবাদিকও ভিসা পাননি। ভিসা না পাওয়া তিন ব্যবসায়ীর নাম জানা যায়নি।