মর্নিংসান২৪ডটকম Date:১৩-০৪-২০১৭ Time:১২:১৮ অপরাহ্ণ


সিদ্দিক আহমেদের জানাজা অনুষ্ঠিত। ছবি-আজীম অনন

সিদ্দিক আহমেদের জানাজা অনুষ্ঠিত। ছবি-আজীম অনন

সুমন চৌধুরী :

বর্ষীয়ান সাংবাদিক সিদ্দিক আহমেদের প্রথম নামাজে জানাজা বৃহস্পতিবার সকাল নয়টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেক, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সহ সভাপতি শহীদ উল আলম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাবেক সভাপতি আবু সুফিয়ান সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণ করেন। রাজনীতিকদের মধ্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ স্মৃতিচারণ করেন। এসময় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, সিইউজে সাধারণ সম্পাদক মো. আলী, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব তপন চক্রবর্তী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সিদ্দিক আহমেদের নামাজে জানাজায় সাংবাদিক, রাজনীতিক, কবি-সাহিত্যিক, পেশাজীবীসহ সর্বস্তরের মানুষের ঢল নামে।বৈশাখের আমেজে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সর্বস্তরে। নামাজে জানাজার পর সিদ্দিক আহমেদের কফিনে ফুল দিয়ে সাংবাদিক নেতারা শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার গশ্চি গ্রামের মাতুব্বর বাড়ীতে ১৯৪৬ খ্রিস্টাব্দ ৩১ জুলাই ইং তারিখে খলিলুর রহমান মাতুব্বর ও গুলছেহের কোল আলোকিত করেন সিদ্দিক আহমেদ।

08

মুক্তিযুদ্ধ শেষে ১৯৭৯ সালে তিনি তাঁর গ্রামের গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগ দেন। গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ে কয়েকবছর শিক্ষকতা করার পর তিনি ১৯৯১ সালে প্রয়াত অধ্যাপক এম এ খালেদের হাত ধরে দৈনিক আজাদী পত্রিকায় যোগ দেন।

চট্টগ্রামের সাংবাদিকতায় জগতে নবীন-প্রবীণ সবার ‘বন্ধু’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন সিদ্দিক আহমেদ। চট্টগ্রামের শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতের সবার কাছে সিদ্দিক আহমেদ ছিলেন প্রিয় মানুষ। এলাকায়ও তিনি ‘ সিদ্দিক মাস্টার ’ হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয় ছিলেন।

সিদ্দিক আহমেদ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন একুশে পদক, সিদ্দিক আহমেদ সম্মাননা স্মারক, উদীচী সম্মাননা, দুর্নিবার সম্মাননা, ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক ও মোহাম্মদ খালেদ ফাউন্ডেশন সম্মাননা, বৌদ্ধ একাডেমি সম্মাননা, খেলাঘর সম্মাননা, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সম্মাননা, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন সম্মাননাসহ নানা সম্মাননা পেয়েছেন।

সিদ্দিক আহমদের প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে কবিতার রাজনীতি, খোলা জানালায় গোপন সুন্দরবন, পিকাসো, আপেলে কামড়ের দাগ, কিছু মানবফুল, পৃষ্ঠা ও পাতা, জল ও তৃষ্ণা অন্যতম। তাঁর সম্মাদিত বই রয়েছে একটি। এছাড়া তাকে নিয়ে বের হয়েছে দুটি স্মারক গ্রন্থও। সিদ্দিক আহমেদ কবিতা অনুবাদ করেছেন দুইশ’র অধিক। আর কলাম লিখেছেন চারশ’র অধিক।রাউজানের গশ্চি গ্রামে ‘ গশ্চি শিশুবাগ’ নামে একটি স্কুল গড়ে তোলেন সিদ্দিক আহমদ।

02

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সিদ্দিক আহমদের মরদেহ শহীদ মিনারের সামনে নিয়ে যাওয়া হয়।আসর নামাজের পর রাউজানের গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। মৃত্যুর আগে সিদ্দিক আহমেদ চার সন্তান রেখে গেছেন।

সিদ্দিক আহমেদ ছিলেন বাষট্টির ছাত্র আন্দোলন ও ঊনসত্তরের গণআন্দোলনের সক্রিয় কর্মী। ছাত্র জীবনে ছাত্র ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত সিদ্দিক আহমেদ ১৯৬৮ সাল থেকে ছিলেন সাহিত্যিক-সাংবাদিক রণেশ দাশগুপ্তের সান্নিধ্যে। তিনি কিছুদিন কৃষি কাজ ও কৃষক আন্দোলনে যুক্ত ছিলেন। তিনি শিশু সংগঠন খেলাঘরের সাথে দীর্ঘদিন যুক্ত ছিলেন। তিনি চট্টগ্রাম বিপ্লব ও বিপ্লবী স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা ছিলেন।




বৈশাখী আমেজে শোকের ছায়া,সিদ্দিক আহমেদের জানাজা অনুষ্ঠিত
দোহাজারী-গুনদুম প্রকল্পের টেন্ডার আহবান,এডিবির অর্থায়ন নিশ্চিত
গাউসুল আযম সৈয়দ আহমদ উল্লাহ্ (কঃ)মাইজভান্ডারীর ১১১তম উরস শরিফ ১০ই মাঘ ২৪ জানুয়ারি
সঙ্গীতের দিকপাল গফুর হালীর জীবনাবসান
জাতীয় পর্যায়ে প্রথম হলেন সীতাকুন্ডের সিফাত: প্রধানমন্ত্রীর কাছ পদক গ্রহন
কে হবেন বুয়েটের উপাচার্য ?
‘স্নাইপার’ রাইফেল জেএমবির আস্তানায় এলো কিভাবে?
শীতের হাওয়া বাড়ার সাথে সাথে নির্বাচনী হাওয়াও জমে উঠেছে
বাংলাদেশ অনুকরণীয় দেশ