১৮ই নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

আপন জুয়েলার্সের স্বর্ণ জব্দ প্রক্রিয়া শুরু

Sunday, 04/06/2017 @ 12:12 pm

আপন জুয়েলার্সের স্বর্ণ জব্দ প্রক্রিয়া শুরু

নিউজ ডেস্ক : বৈধ কাগজ-পত্র ছাড়াই আপন জুয়েলার্সে থাকা সাড়ে ১৩ মণ সোনা ও ডায়মন্ড জব্দের কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করেছে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর। রাজধানীতে আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শাখায় রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার পর থেকে একযোগে এ কাজ শুরু হয়েছে। শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. মইনুল খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. মইনুল খান বলেন, আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষ তাদের স্বর্ণের পক্ষে কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর আনুষ্ঠানিকভাবে তা জব্দের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এজন্য একযোগে রোববার সকাল থেকে আপন জুয়েলার্সের ৫টি শো রুম থেকে পাওয়া সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ আনুষ্ঠানিকভাবে জব্দ দেখানোর প্রক্রিয়া চলছে। জব্দকৃত স্বর্ণ বাংলাদেশ ব্যাংকে স্থানান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।

ড. মইনুল খান বলেন, সংশ্লিষ্ট সবার উপস্থিতিতে স্বর্ণ জব্দ দেখানোর পর ঢাকা কাস্টম হাউসের শুল্ক গুদামের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেয়া হবে। জব্দকৃত স্বর্ণ ও ডায়মন্ড শুল্ক আইন অনুযায়ী নিষ্পত্তি করা হবে।

শুল্ক গোয়ন্দা সদর দফতর সূত্র জানায়, শুল্ক গোয়েন্দার ৫টি দল এই স্বর্ণ জব্দ ও স্থানান্তর প্রক্রিয়া তদারকি করছেন। যুগ্ম পরিচালক মো. সফিউর রহমান প্রক্রিয়ার সার্বিক সমন্বয় করছেন। এ ছাড়া স্বর্ণ জব্দ ও বাংলাদেশ ব্যাংকে জমাদানের সার্বিক প্রক্রিয়া তত্ত্বাবধানে রয়েছেন এ কে নুরুল হুদা আজাদ।

গুলশান-২ এর সুবাস্তু ভবন-সংলগ্ন আপন জুয়েলার্সের শোরুমে তদারকি করছেন শুল্ক গোয়েন্দার ডেপুটি ডিরেক্টর (ডিডি) শরীফুল হাসান। সীমান্ত স্কয়ারে করছেন ডেপুটি ডিরেক্টর (ডিডি) জাকির হোসেন, উত্তরার শাখায় ডেপুটি ডিরেক্টর (ডিডি) শামীমুর রহমান, মৌচাক মার্কেট শাখায় রয়েছেন ডেপুটি ডিরেক্টর (ডিডি) সাইফুর রহমান এবং সহকারী পরিচালক (এডি) আরজিনা খাতুনের নেতৃত্বে গুলশান-১ ডিসিসি মার্কেট শাখায় স্বর্ণ জব্দ প্রক্রিয়া চলছে।