পাঁচ বছরের কারাদণ্ড সালমানের

পাঁচ বছরের কারাদণ্ড সালমানের
পাঁচ বছরের কারাদণ্ড সালমানের

বিনোদন ডেস্ক: বহুল আলোচিত কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় সালমান খানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার রুপি জরিমানাও দিতে হবে বলে খবর।

যোধপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেব সিং খাতরি বৃহস্পতিবার এ রায় প্রদান করেন।

মামলায় অন্য চার অভিযুক্ত ছিলেন সাইফ আলি খান, তব্বু, নীলম এবং সোনালি বেন্দ্রে। কিন্তু প্রমাণের অভাবে তাদের বেকসুর খালাস করে দিয়েছে আদালত। সালমনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে জোধপুর সেন্ট্রাল জেলে।

১৯৯৮-এর ১ এবং ২ অক্টোবর জোধপুরে ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’ সিনেমার শুটিংয়ের মাঝে আলাদা আলাদা জায়গায় দু’টি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেছিলেন সিলমন খান। সেই সময় তার সঙ্গে সাইফ আলি খান, নীলম, তব্বু এবং সোনালি বেন্দ্রেরা ছিলেন। রাজস্থানের কঙ্কানি এলাকার গ্রামবাসীদের বক্তব্য, গুলির শব্দ শুনে তারা সালমনদের জিপসি গাড়িটিকে ধাওয়া করেছিলেন। কিন্তু তাদের ধরা যায়নি। সেই সময় চালকের আসনে ছিলেন স্বয়ং সালমন। প্রবল গতিতে গাড়ি ছুটিয়ে তারা পালিয়ে যান বলে দাবি করেন গ্রামবাসীরা।

এদিকে সালমনের জেলে যেতে হলে বন্ধ হয়ে যাবে ‘রেস থ্রি’-র শুটিং। পাশাপাশি ‘ভরত’ এবং কিটি’-র শুটিংও বন্ধ হয়ে যাবে। পাশাপাশি ‘দাস কা দম’, ‘বিগ বস ১২’-এর সঞ্চালনায়ও এবার আর সালমনকে দেখা যাবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। সবকিছু মিলিয়ে এই মুহূর্তে প্রায় ৫০০ কোটি ক্ষতির মুখে বলিউড।

তিন বছরের কম কারাদণ্ড মিললে, জোধপুর আদালতেই আজ জামিনের জন্য আবেদন করতে পারতেন সালমনের আইনজীবীরা। কিন্তু পাঁচ বছর কারাবাসের নির্দেশ পাওয়ার পর কিছুই করার ছিল না। কাল হয়তো সালমনের জামিনের জন্য তার আইনজীবীরা উচ্চ আদালতে আবেদন করবেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতটা সালমনের জীবনে একেবারেই নতুন। এই প্রথম তাকে রাত্রিবাস করতে হবে জেলের অন্দরে।