ভুয়া কাগজপত্রের মাধ্যমে মোংলা বন্দরে গাড়ি লোপাট

নিউজ ডেস্ক ::    মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের কার-ইয়ার্ড থেকে ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে প্রায় আড়াই কোটি টাকা মূল্যের একটি বিলাসবহুল প্রাডো গাড়ি বের করে নিয়ে গেছে প্রতারক চক্র। বন্দরের ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকেলে জেটির অভ্যন্তরে ৫ নম্বর শেডে থাকা গাড়িটি কাগজপত্র দেখিয়ে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় এক ব্যক্তি। পরে ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তারা জমাকৃত কাগজপত্র মিলিয়ে দেখতে গিয়ে লক্ষ্য করেন সবগুলো কাগজই জাল।

এই ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে ট্রাফিক অফিসার মিজানুর রহমান। গাড়িটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ। এদিকে ঘটনার পরে চার সদস্যের নিজস্ব একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়াও দায়িত্বে অবহেলার কারণে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে দুই কর্মকর্তাকে। বরখাস্তকৃতরা হলেন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ আলী ও সিনিয়র আউটডোর অ্যাসিস্ট্যান্ট মো. তোফাজ্জেল।

এ ঘটনার পর থেকে বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আগের চেয়ে জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর একেএম ফারুক হাসান। কাস্টমস হাউসের কমিশনার সুরেশ চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, গাড়িটি বন্দর থেকে কে বা কারা ছাড়িয়ে নিয়ে গেছে। কিন্তু ওই গাড়ীর শুল্কবিষয়ক কোনো কাগজপত্র কাস্টমসে জমা হয়নি।

এ ছাড়া শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন রফিকুল ইসলাম উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, মোংলা বন্দরকেন্দ্রিক গাড়ি আমদানিকারকদের মধ্যে ভীতি ছড়ানো ও বন্দরের সুনাম ক্ষুণ্ণ করতেই একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এদেরকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীও জানিয়েছেন তিনি। এর আগেও একই কায়দায় একটি বিএমডব্লিউ গাড়ি লোপাটের ঘটনা ঘটে মোংলা বন্দরে।

মর্নিংসান / এসএ