মর্নিংসান২৪ডটকম Date:১১-০৬-২০১৮ Time:১২:০৮ অপরাহ্ণ


প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে ব্রাজিল। হলুদ জার্সির হয়ে গোল করলেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস, নেইমার ও ফিলিপ কৌতিনহো। ভিয়েনায় এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধের ৩৫ মিনিটে ম্যানচেস্টার সিটির স্ট্রাইকার জেসুস প্রথম গোল করেন। দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি সময়ে নেইমার দ্বিতীয় গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। কিছুক্ষণ পরেই বার্সেলোনার মিডফিল্ডার কৌতিনহো তৃতীয় গোল করেন।

ব্রাজিলের জার্সিতে ৮৮ ম্যাচে এনিয়ে ৫৫টি গোল করলেন নেইমার। যা রোমারিও করেছিলেন ৭০ ম্যাচ খেলে। দুজনই তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছেন। তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন ৯২ ম্যাচে ৭৭ গোল করা পেলে। এছাড়া দ্বিতীয় স্থান দখল করে আছেন রোনালদো। ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ের এই নায়ক ৯৮ ম্যাচে করেছেন ৬২টি গোল। কোচ তিতে থেকে বেশি খুশি কারও হবার কথা না, কারণ বিশ্বের সবচেয়ে দাবি ফুটবলার দলে থাকলে সতীর্থদের আত্মবিশ্বাসও বেড়ে যায়।

ম্যাচ শেষে ব্রাজিল বস বলেন, নেইমারের সীমা আমার জানা নেই। তার ফুটবল নৈপুণ্যতা ও দক্ষতা আকর্ষণীয়। যখন তাকে দলের আক্রমণভাগে পাওয়া যায় তখন সে ভয়ঙ্কর। বর্তমান ব্রাজিল দলের সবচেয়ে বড় এই তারকা গেলো ফেব্রুয়ারিতে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে মার্সেইর বিপক্ষে পায়ে গুরুতর চোট পান। এতে ডাক্তারের চাকুর নিচেও যেতে হয় এই ফরোয়ার্ডকে।

গুরুতর এই চোটের কারণে প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) হয়ে চলতি মৌসুমে আর নামতেই পারেননি। আর তাই বিশ্বকাপ শুরুর আগে ২৬ বছর বয়সী এই তারকাকে নিয়ে তৈরি হয় শঙ্কা। গেলো সপ্তাহে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষের ম্যাচ দিয়ে মাঠে নামেন নেইমার। ইউরোপিয়ান দলটির বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ের দিনে নিজেও গোল একটি গোল করেন।

এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন কতে পারেনি অস্ট্রিয়া। ১৯৯৮ সাল থেকেই আর বিশ্বকাপের টিকিট পায়নি দেশটি। তাদের হয়ে ওয়েস্ট হ্যাম ফরওয়ার্ড মার্কো আর্নোটভিক প্রথমার্ধে সুযোগ পেলেও শেষ অবধি সুযোগ হাতছাড়া করেন।

বিশ্বকাপের মূল পর্বের নামার আগে অনেকটা ঝুঁকি নিয়েই নেইমারকে মাঠে নামান তিতে। সেলেকাওদের কোচ মজা করে বলেন, আমরা ইউএফসি’র (আল্টিমেট ফাইটিং চ্যাম্পিয়নশিপ, আমেরিকান মার্শাল আর্ট) জন্য প্রস্তুত ছিলাম। তবে কেউই চোট পায়নি।

২০১৭ সালের জুন মাসের পর আন্তর্জাতিক ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। পরপর দশটি ম্যাচ জিতেছে নেইমারের দল। এছাড়া ২০১৬ সালে টিটে কোচ হিসাবে যোগ দেওয়ার পরে ২১টি ম্যাচ খেলে ১৬টি ক্লিন শিট পেয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দলটি। এবারের বিশ্বকাপে গ্রুপ ই-তে রয়েছে সাম্বা কিংরা। সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের অভিযান শুরু করবে গত আসরের কোয়ার্টার ফাইনালিস্টরা। তারপরে কোস্টারিকা ও সার্বিয়ার বিরুদ্ধে গ্রুপ লিগের ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল শিবির।

মর্নিংসান/এসএ