মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০১-০৭-২০১৮ Time:৭:৩২ অপরাহ্ণ


ব্রেক্সিটের পর বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য আরো বাড়বে: বাণিজ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ব্রিটেনের প্রায় দুই শতাধিক কোম্পানি বাংলাদেশে কাজ করছে। বিনিয়োগের পরিমাণও অনেক। বর্তমানে উভয় দেশের বাণিজ্য প্রায় চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ব্রিটেন বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম রপ্তানি বাজার। ব্রিটেন ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাবার পর (ব্রেক্সিটের পর) বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য আরো বাড়বে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হলে বৃটেন বাংলাদেশকে জিএসপি প্লাস সুবিধা প্রদান করবে বলে আশা করছি। এজন্য বাংলাদেশ প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিচ্ছে। ব্রিটেনও বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি করতে আগ্রহী।

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে ঢাকায় সফররত ব্রিটিশ স্টেট মিনিস্টার ফর এশিয়া অ্যান্ড দ্য প্যাসিফিক অ্যাট দ্য ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েল্থ অফিস মার্ক ফিল্ড, এমপি-এর সঙ্গে বৈঠকে শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ব্রেক্সিটের পর ব্রিটেনের সঙ্গে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরো জোরদার হবে এমনটাই প্রত্যাশা করেন তিনি।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নয়নের রোল মডেল আখ্যায়িত করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশ বর্তমানে ৪২তম অর্থনীতির দেশ। ২০৩০ সালে বাংলাদেশ ২৮তম দেশে পরিণত হবে। বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ নিজ অর্থায়নে বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংক বিনিয়োগ না করতে চাইলে, বাংলাদেশ নিজ অর্থায়নেই পদ্মা সেতু নির্মাণ করছে। বাংলাদেশের বাজেট এখন আর বিদেশি সাহায্যের ওপর নির্ভর নয়। নারীর ক্ষমতায়নে এ অঞ্চলের মধ্যে বাংলাদেশ এগিয়ে। বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের ৭৩ জন নারী এমপি রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে নারীর উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। তৈরি পোশাক শিল্পে ৪৫ লাখ শ্রমিকের ৮০ ভাগ শ্রমিক নারী। নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়ে।

এ সময় বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, বৃটেনের জেন্ডার সমতা বিষয়ে স্পেশাল রিপ্রেজেনটেটিভ ফরেনসেক্রেটারি জোয়ান্না রিপার, ঢাকার বৃটিশ ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার কানবার হুসেইন বরসহ মন্ত্রণালয়েল কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।