মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০৫-০৭-২০১৮ Time:৫:১০ অপরাহ্ণ


আর্জেন্টিনার নতুন কোচ পেপ গার্দিওলা

ক্রীড়া ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে আর্জেন্টিনার সামনে মিশন কাতার বিশ্বকাপ-২০২২। তাই বিশ্বকাপের জন্য এখন থেকেই ঘর গোছানোর ভাবনা আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের। কিন্তু বাধ সেধেছেন জর্জ স্যাম্পাওলি। তার নিজের এখনই দায়িত্ব ছাড়ার ইচ্ছে নেই। পরের বছর কোপা আমেরিকা পর্যন্ত মেসিদের কোচ থাকতে চান তিনি। তবে চারপাশের যা চাপ তাতে হয়তো শেষমেশ চাকরি ছাড়তেই হবে তাকে। এরই মধ্যে বিনা পারিশ্রমিকে আর্জেন্টিনার কোচ হতে চেয়েছেন দিয়েগো ম্যারাডোনা।

তবে স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমের দাবি পেপ গার্দিওলাকেই কোচ হিসেবে চায় আর্জেন্টিনা।

চলতি বছরেই ম্যানচেস্টার সিটিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতিয়েছেন গার্দিওলা। নতুন মওসুমকে সামনে রেখে দল গোছানোর কাজেও নেমে পড়েছেন তিনি। ২০২১ সাল পর্যন্ত গার্দিওলার সঙ্গে চুক্তি রয়েছে ম্যানসিটির। এরই মাঝে একটি স্প্যানিশ টিভি চ্যানেলের দাবি, বাৎসরিক ১২ মিলিয়ন ডলারে ২০২২ বিশ্বকাপ পর্যন্ত পেপ গার্দিওলাকে চায় আর্জেন্টিনা।

তবে আর্জেন্টিনার জাতীয় দলে বিদেশি কোচ নিয়োগের চল নেই বললেই চলে। ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাচ্ছে মাত্র দুজন বিদেশি কোচ আর্জেন্টিনার কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। এদের মধ্যে একজন ইতালিয়ান ফেলিপ পাসসুসি ছিলেন ১৯২৪ সালে। আর একজন অবশ্য ইতালি ও আর্জেন্টিনার দ্বৈত নাগরিক রেনাতো সেজারিনি ছিলেন ১৯৬৮ সালে। ৪০ বছর পরে আবার এক বিদেশি কোচ কি তবে আর্জেন্টিনার দায়িত্ব নিতে চলেছে?

আসলে লিওনেল মেসির সঙ্গে খুব ভাল সম্পর্ক গার্দিওলার। আবার ম্যান সিটিতে খেলার সৌজন্যে সার্জিও আগুয়েরোর সঙ্গেও পেপের সম্পর্ক ভাল। তাই এমন গুঞ্জন আরও বেশি করে প্রকাশ্যে আসছে।

পাশাপাশি স্প্যানিশ দৈনিক এএস-এ প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, দিয়েগো ম্যারাডোনা যখন আর্জেন্টিনার কোচ (২০০৮-২০১০) ছিলেন, তখন তাকে পেপ গার্দিওলা একবার প্রশ্ন করেছিলেন, “দিয়েগো তুমি কি আমাকে ভবিষ্যতে আর্জেন্টিনা দলের কোচ হিসেবে দেখতে চাও?” তখন ম্যারাডোনার জবাব ছিল, “অবশ্যই” কয়েক বছর পর এবার আর্জেন্টিনার কোচ হিসেবে উঠে আসছে সেই গার্দিওলার নামই।