মর্নিংসান২৪ডটকম Date:১৮-০৮-২০১৮ Time:৪:৫৪ অপরাহ্ণ


খাগড়াছড়িতে দুই পক্ষের গোলাগুলিতে নিহত ৬

চট্টগ্রাম অফিস: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খাগড়াছড়ি জেলার সদর উপজেলায় পার্বত্য সশস্ত্র সংগঠনের দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে ৬ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন আরো দুজন।

শনিবার সকাল ৯টার দিকে এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) প্রসিত খিসা গ্রুপের কর্মী।

নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা হলেন- ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা পলাশ চাকমা ও এলটন চাকমা।

খাগড়াছড়ি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল আউয়াল খাগড়াছড়িতে গুলিতে ছয়জন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আধিপত্য বিস্তারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ সকাল ৯টার দিকে পার্বত্য সশস্ত্র সংগঠনের দুটি গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক গুলি বিনিময় শুরু হয়। এতে ইউপিডিএফ প্রসিত খিসা গ্রুপের ছয় কর্মী নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে ছয়জনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে। এছাড়া গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহত দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এখনো ওই এলাকায় থেমে থেমে দুই পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটছে।

সেনাবাহিনী ও পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য পুরো এলাকায় অবস্থান নিয়ে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করছে।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ- প্রসিত খিসা) কেন্দ্রীয় নেতা মাইকেল চাকমা জানিয়েছেন, অতর্কিত গুলি চালিয়ে তাদের ছয়জনকে হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনার জন্য তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস- সন্তু লারমা) গ্রুপকে দায়ী করেছেন।