মর্নিংসান২৪ডটকম Date:৩০-০৯-২০১৮ Time:৫:৫৮ অপরাহ্ণ


কক্সবাজারের পৃথক বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

চট্টগ্রাম অফিস: কক্সবাজারের টেকনাফ ও মহেশখালীতে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই জন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এসময় পুলিশের নয় সদস্য আহত হয়েছেন।

রোববার ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

রোববার ভোরে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের দরগারছড়া এলাকায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন ইমরান প্রকাশ পুতুইয়া মিস্ত্রী (৩৫)। নিহত ইমরান হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়া এলাকার আজিজুল হকের পুত্র।

টেকনাফ থানার ওসি রণজিত কুমার বড়ুয়া জানান, ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযান পরিচালনা করার সময় ইয়াবা কারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এরপর পুলিশ সদস্যরা পাল্টা গুলি চালালে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পুতুইয়া মিস্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া সেখানে থেকে দুটি অস্ত্র, গুলি ও ৭ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে বন্দুকযুদ্ধে টেকনাফ থানার এসআই নাজিম, এএসআই মুরাদ, এএসআই দেলোয়ার ও সিপাহী ইমন আহত হয়েছেন। আহতদের টেকনাফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের সাপেরডেইল এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন মাহমুদুল করিম (২৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী। নিহত মাহমুদুল করিম ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের দক্ষিণকূল এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে।

মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের সাপেরডেইল এলাকায় কিছু সন্ত্রাসী অপরাধ সংঘটনের উদ্দেশ্যে জড়ো হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে অতর্কিত গুলি ছুঁড়তে থাকলে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাহমুদুল করিম নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। এসময় ঘটনাস্থলের আশপাশে তল্লাশি চালিয়ে আটটি দেশে তৈরি বন্দুক, ২০ রাউন্ড গুলি ও ২ হাজার ইয়াবা পিস পাওয়া যায়।

তিনি আরও জানান, গুলিবিদ্ধ মাহমুদুল করিমকে মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তার বিরুদ্ধে থানায় মাদক, অস্ত্র ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে গুলিবিনিময়কালে এসআই দীপক, এএসআই সনজিব, সিপাহী ইব্রাহিম, মাইন উদ্ধিন, আফতাব উদ্দিন আহত হয়েছেন। আহতদের মহেশখালী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।