মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০২-১০-২০১৮ Time:১২:৩৯ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক  ::      ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ভয়াবহ ভূমিকম্প ও সুনামিতে দ্বীপের তিনটি কারাগার থেকে প্রায় এক হাজার ২০০ আসামি পালিয়ে গেছে। সোমবার দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র এই কথা জানিয়েছেন বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে।

চ্যানেল নিউজ এশিয়া জানিয়েছে, গত শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টার দিকে সুলাওয়েসি দ্বীপের পালু শহরে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প ও সুনামিতে তিনটি কারাগার বিধ্বস্ত হয়। সেই কারাগারগুলো থেকে এক হাজার ২০০ কয়েদি পালিয়েছেন। ওই তিনটি কারাগারের মধ্যে দুটি পালু শহরে অবস্থিত। অপরটি সেন্ট্রাল সুলাওয়েসি প্রদেশের ডংগালা কারাগার।

বিপর্যয়ের পর কারাগারের নিরাপত্তা দেয়াল বিধ্বস্ত হওয়ায় তারা পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায়। কেউ কেউ বিধ্বস্ত কারাগারের দেয়াল টপকে ও প্রধান কারাফটক ভেঙে পালিয়ে যায় বলে বিচার মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পুগু ইউতামি জানিয়েছেন।

তিনটি কারাগারের মধ্যে ১২০ জনের ধারণক্ষমতাসম্পন্ন সুনামি আক্রান্ত সুলাওয়েসির পালু শহরের একটি কারাগার থেকে ৫৮১ আসামি পালিয়ে গেছে। ভূমিকম্পে কারাগারের দেয়াল ধসে গেলে আসামিরা কারারক্ষীদের ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায়। বিচার মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পুগু ইউতামি বলেন, প্রথম দিকে বিষয়টি ভালোই ছিল, কিন্তু ভূমিকম্পের পরে তা আর ভালো থাকেনি।

কারাগারের মেঝে ফুঁড়ে পানি উঠে আসে, আর কারাবন্দিরা তাতে আতঙ্কিত হয় এবং পালিয়ে যায়। কিন্তু ওই পানি সুনামির নয় বলে দাবি করেন তিনি। ‘আমি নিশ্চিত ভূমিকম্পে নিজেরা আক্রান্ত হতে পারে, সে ভয়েই তারা পালিয়েছে। এটি নিঃসন্দেহে আসামিদের কাছে জীবন-মরণের ব্যাপার ছিল’ বলে মন্তব্য করেন ইউতামি।

ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত আসামিবোঝাই পালুর আরো একটি দুর্যোগ আক্রান্ত কারাগারের ফটক ভেঙে আসামিরা পালিয়ে যায়। এ ছাড়া ডংগালার একটি কারাগারে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। সে সময় কারাগারে বন্দি ৩৪৩ আসামির সবাই পালিয়ে যায় বলে ইউতামি জানান।

নিজেদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চাওয়া বন্দিরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওই অগ্নিকাণ্ড ঘটায় বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইউতামি বলেন, ডংগালা শহর ভয়াবহ ভূমিকম্পে আক্রান্ত জানতে পেরে আসামিরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। কারারক্ষীরা সে সময় তাদের আশ্বস্ত করেন যে নিজ নিজ পরিবারের সঙ্গে তারা সাক্ষাতের সুযোগ পাবে।

কিন্তু তার পরও কিছু বন্দি অধৈর্য হয়ে ওই অগ্নিকাণ্ড ঘটায়। গত শুক্রবার ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের পালু শহরে রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প এবং এর ফলে সৃষ্ট সুনামিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

এখন পর্যন্ত উদ্ধারকাজ চলছে, মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। এর আগে গত মাসেও বেশ কয়েকবার ভূমিকম্পের কবলে পড়ে ইন্দোনেশিয়া। আগস্টের ৫ তারিখে আঘাত হানা ভূমিকম্পে দেশটিতে ৪৬০ জনের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটে।
মর্নিংসান/এসএ