মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০৩-০৬-২০১৯ Time:৬:২৮ অপরাহ্ণ


পরিবহন ও সড়ক কোথাও শৃঙ্খলা নেই: কাদের

নিউজ ডেস্ক: পরিবহন ও সড়ক উভয় ক্ষেত্রে কোথাও শৃঙ্খলা নেই-এমন মন্তব্য করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমাদের দেশে শৃঙ্খলার অভাব। পরিবহন ও সড়ক উভয় ক্ষেত্রেই কোথাও শৃঙ্খলা নেই। এই শৃঙ্খলা ফেরানো এখন বড় চ্যালেঞ্জ। এটি ফেরাতে পারলে দেশ এগিয়ে যাবে।’

তিনি বলেন, ‘টোকিও, সিঙ্গাপুর, কলকাতা শহরের রাস্তাগুলো দেখেছি। এই রাস্তাগুলো আমাদের বাংলাদেশের রাস্তার মতো এত প্রশস্ত নয়, তারপরেও সেখানে কোনো দুর্ঘটনা হয় না। গাড়িতে গাড়িতে ঠোকাঠুকি হয় না।’

সোমবার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যুতে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘এ দেশে সততার সাথে কাজ করা -এটা একটা চ্যালেঞ্জ। সত্য কথা আমরা খুব কম লোকই বলি। রাজনীতিতে সৎ মানুষের সংখ্যা খুব বেশি নেই। আমরা সবাই সৎ হলে দেশের চেহারাটা বদলে যেত। আমাদের এখানে অবকাঠামোগত উন্নয়ন আশাতিরিক্ত হয়েছে। কিন্তু ডিসিপ্লিনের অভাবে এর সুফল আমরা জনগণের কাছে পৌঁছাতে পারিনি। এখানে শৃঙ্খলা হচ্ছে বড় সঙ্কট। পরিবহনেও শৃঙ্খলা নেই এবং সড়কেও শৃঙ্খলা নেই। আমাদের এখন সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে শৃঙ্খলা।’

মন্ত্রী বলেন, ‘শৃঙ্খলার সঙ্কট যদি আমরা কাটাতে পারি, তাহলে এ দেশে যোগাযোগ ব্যবস্থায় অনেক স্বস্তি আসবে।’

তিনি বলেন, ‘চিকিৎসকের বারণের পরও আমি টার্মিনালগুলো পরিদর্শন করেছি, যাতে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া না হয়। বাস মালিকরা আমাকে বোঝাতে চেয়েছেন, যাওয়ার সময় যাত্রী থাকলেও আসার সময় তাদের খালি আসতে হয়। আমি তাদেরকে বলেছি, সারাবছরই তো ব্যবসা করেছেন, ঈদের সময় মুনাফার ক্ষেত্রে একটু সংযমী হন। বাস মালিকরা আসলে লোভী।’

সড়কের ঈদযাত্রার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ঈদযাত্রা এর আগে এত স্বস্তিদায়ক হয়নি। কোথাও থেকে বড় ধরনের যানজটের খবর পাইনি। আজকে একটু চাপ বাড়বে গার্মেন্টস ছুটির পর বিকেলে। বৃষ্টি-বাদল হলে যানবাহনের ধীর গতি হতে পারে। এমনটাই সবাই বিশ্বাস করেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ৪ ঘণ্টায় যাচ্ছে। আমরা বহুদিন পর স্বস্তির জায়গায় এসেছি। এই স্বস্তিদায়ক যাত্রা আগামী দিনেও রাখতে চাই। শুধু ঈদ কেন, সারা বছরই রাস্তায় স্বস্তি থাকবে, এটাই জনগণ আশা করে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি ঈদের পরই ডিটিসিএ’র (ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ) মিটিং করব, দুই সিটির মেয়রদের সঙ্গে বৈঠক করব। ঢাকায় বছরের পর বছর ট্রাফিক ব্যবস্থায় যে বিশৃঙ্খলা চলছে সেটার অবসানে আমাদের কিছু কাজ আছে। আমার নিজেরও কিছু আইডিয়া আছে। এ নিয়ে আমি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গেও কথা বলব, কার্যকর কিছু করা দরকার।’

মেট্রোরেলের মাধ্যমে ঢাকার যানজট সমস্যার কিছুটা সমাধান হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংক পর্যন্ত মেট্রোরেলের (এমআরটি লাইন-৬) পূর্ত কাজ আগামী বছরের মধ্যে শেষ হবে। ২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে মেট্রোরেল আমরা চালু করতে পারব।’

পাঁচটি মেট্রোরেলের কাজ ২০৩০ সালের মধ্যে শেষ হলে যানজট নিরসনে সার্বিক সামগ্রিক পদক্ষেপ হিসেবে সুফল বলেও জানান সেতুমন্ত্রী।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মূল কথা হচ্ছে, সমাজে ভোগান্তি সৃষ্টি করি আমরা। জটিলতা সৃষ্টি হয় আমাদেরই কারণে। আর তা ফেস করে জনগণ। অথচ জনগণ কোনো ঝামেলাই সৃষ্টি করে না। রাজনীতিতে সৎ মানুষের খুবই অভাব। যদি তা না হতো. তাহলে দেশ এতদিনে সোনার বাংলাদেশ হতো।’

পাস্তুরিত দুধ নিয়ে কারসাজি আছে কি না দেখা উচিত: প্রধানমন্ত্রী» « চান্দগাঁওয়ে ডোমখালী খালে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু» « পাকিস্তানে সামরিক বিমান বিধ্বস্তে নিহত ১৭, আহত ১২» « র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ধর্ষণকারীর নিহত» « গুজব রটনাকারীদের ধরিয়ে দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর» « লামায় বন্যা ও পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ» « কক্সবাজার শহর রক্ষায় ঝাউবন করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর» « দেশের সব উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর» « সিঙ্গাপুরে ওবায়দুল কাদেরের স্বাস্থ্যের আশানুরূপ উন্নতি» « প্রাইভেটকারে করে এসে ছিনতাইয়ের চেষ্টা, ৩ জনকে গণপিটুনি» «