প্রথমবারের মতো বাজেট উপস্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রথমবারের মতো বাজেট উপস্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী
প্রথমবারের মতো বাজেট উপস্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: বর্তমান সরকারের তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বাজেট উপস্থাপন শুরু হয়েছে জাতীয় সংসদে। ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয়েছে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট এটি।

বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয়। বরাবরের মতো বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে এটি তার প্রথম বাজেট। কিন্তু বাজেট উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল মাঝপথে অসুস্থতা অনুভব করলে বাজেট নিজেই উপস্থাপন শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের ইতিহাসে কোনো প্রধানমন্ত্রীর এটাই প্রথম বাজেট উপস্থাপন।

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরীর কাছে প্রধানমন্ত্রী বাজেট উপস্থাপনের অনুমতি চেয়ে বলেন, ‘আমার অর্থমন্ত্রী অসুস্থ। আমি নিজেও গলার সমস্যায় আছি। এরকম কখনো হয়নি। এবার হলো। যাহোক, মাননীয় অর্থমন্ত্রী যতটুকু পড়েছেন, তার পর থেকে আমি শুরু করছি।’

এ সময় স্পিকারকে তিনি বলেন, ‘তিনি বসে বাজেট উপস্থাপন করতে পারবেন কি না।’ স্পিকার তাকে বলেন, ‘আপনার যেভাবে সুবিধা, বসেও পড়তে পারেন।’

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীকে প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনের অনুমতি দেন। প্রধানমন্ত্রী দাঁড়িয়ে না বসে বাজেট বক্তৃতা উপস্থাপন করবেন- এমন প্রস্তাব জানালে স্পিকার বসে উপস্থাপনের অনুমতি দেন এবং প্রথমবারের মতো একজন প্রধানমন্ত্রীকে প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনের জন্য ধন্যবাদ জানান।

প্রস্তাবিত বাজেট পাস হবে ৩০ জুন। ১ জুলাই থেকে শুরু হবে নতুন অর্থবছর।

এর আগে মন্ত্রিসভা ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের অনুমোদন দেয়। বাজেট ঘোষণার আগে দুপুর ১টার একটু পর জাতীয় সংসদ ভবনে বিশেষ বৈঠকে মন্ত্রিসভা এ অনুমোদন দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার এ বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

অসুস্থ থাকার কারণে আসতে দেরি হওয়ায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে ছাড়াই মন্ত্রিসভার বৈঠক শুরু হয়। পরে অর্থমন্ত্রী অ্যাপোলো হাসপাতাল থেকে সরাসরি বৈঠকে যোগ দেন।