আদর্শ সমাজ বিনির্মাণে সৎসঙ্গ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে-মনজুর আলম

 

চট্টগ্রাম অফিস: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব মনজুর আলম বলেছেন, আদর্শ সমাজ বিনির্মাণে সৎসঙ্গের বিকল্প নেই। সুশৃঙ্খল জাতি গঠনে সৎসঙ্গ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। তিনি বলেন দেশ ও জাতির কল্যাণে ঠাকুর অনুকুলচন্দ্রের আদর্শ আমাদের অনুপ্রাণিত করে। সঙ্গসঙ্গ মানুষ গড়ার কারিগর। ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। মানুষের কল্যানের জন্য কাজ করতে বলেছেন। তাঁর সৃষ্ট সৎসঙ্গ মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের সবারই লক্ষ্য হওয়া উচিত-মানুষের কল্যান করা। তাহলে সমাজ সুন্দর হবে-রাষ্ট্রের উন্নতি হবে। আমরা সবাই ভালো থাকতে পারবো। মেয়র গত ৩০ জুলাই ঠাকুর অনুকুলচন্দ্রের সহধর্মিনী বড়মার ১২১তম জন্ম মহোৎসব ও সৎসঙ্গ বিহার চট্টগ্রামের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। জনার্দন ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কবি এজাজ ইউসুফী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের অর্থ সম্পাদক শুকলাল দাশ, কাউন্সিলর দিদারুর রহমান লাভু, কাউন্সিলর মোঃ জাফরুল ইসলাম, কাউন্সিলর ইয়াছিন চৌধুরী আশু, সমাজসেবক সমীর দেব, মোঃ আলম, তিমির সেন, প্রকৌশলী আশীষ চৌধুরী, প্রকৌশলী সনদ ঘোষ, মাধব দত্ত, অজয় ধর প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে মেয়র সৎসঙ্গ বিহার চট্টগ্রাম প্রাঙ্গণে “সৎসঙ্গ স্মরণীর ফলক উন্মোচন করেন। এছাড়া মেয়র সৎসঙ্গ বিহার চট্টগ্রামের তপোবন বিদ্যা নিকেতন, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, হস্ত ও কুঠির শিল্প, লাইব্রেরী সহ অন্যান্য প্রকল্প সমূহ ঘুরে দেখেন। একই সাথে মেয়র এই প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নের জন্য আর্থিক অনুদান সহ সহযোগীতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন।
সকালে মাতৃ সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য মাহজাবীন মোরশেদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মৃণালিনী চক্রবর্ত্তী, রতœা ভট্টাচার্য, উমাশ্রী ভট্টাচার্য, তপতী দত্ত, গীতা দে, কৃষ্ণা দত্ত, পাপড়ী ঘোষ, জয়া দাশ প্রমুখ। অনুষ্ঠান উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সহযোগীতায় ৭৫০ জন রোগীকে বিনামূল্যে ঔষধ ও চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এছাড়া দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে বিনতি প্রার্থনা, নাম সংকীর্তন, সংগীতানুষ্ঠান ও আনন্দ বাজারে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।