নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রশংসায় ট্রাম্প কন্যা

সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন ইভানকা ট্রাম্প। নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় উল্লেখযোগ্য সংস্কার পদক্ষেপ নেয়ায় দেশ দুইটির প্রশংসা করেন তিনি।

বিদেশ ভ্রমণে নারীদের অনুমোদন ও পুরুষ আত্মীয়দের অনুমতি ছাড়াই পাসপোর্ট ইস্যুতে আইনে পরিবর্তন এনেছে সৌদি আরব। নারী স্বাধীনতার এই অগ্রগামী পদক্ষেপের জন্য সৌদি আরবকে অভিনন্দন জানান।

দুবাইতে রোববার নারী উদ্যোক্তা ও আঞ্চলিক নেতাদের এক সমাবেশে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই কন্যা ও উপদেষ্টা বলেন, আমরা জানি, যখন নারীরা স্বাধীন থাকেন, তখন তারা সফল হন, পরিবারে সমৃদ্ধি ঘটে, সম্প্রদায়গুলো বিকশিত হয় ও রাষ্ট্রগুলোও আরও শক্তিশালী হয়।

কেবল সৌদি আরবই না, অন্যান্য আরব দেশের পরিবর্তনের দিকেও আভাস দিয়েছেন ট্রাম্প কন্যা।
তিনি বলেন, কর্মক্ষেত্রে বৈষম্যের বিরুদ্ধে আইন প্রণয়ন করেছে বাহরাইন।

কর্মক্ষেত্রে রাতে নারীদের কাজের সক্ষমতার ওপর বিধিনিষেধ তুলে নিয়েছে জর্ডান। নারীদের ভূমি অধিকার বাড়িয়েছে মরোক্কো। আর গৃহসহিংসতার বিরুদ্ধে নতুন আইন করেছে তিউনেশিয়া। মধ্যপ্রাচ্যে বর্তমানে গড়ে একজন পুরুষের তুলনায় নারীর অধিকার অর্ধেক।