গাজীপুরে পুলিশের বুদ্ধিমত্তায় ফিরে পেলো এক ব্যক্তির জীবন

খোকন মজুমদার রাজিব: গাজীপুর কাশিমপুরের জাহাঙ্গীর আলম এর লাশ মর্গে প্রেরণ এর পুর্বে পুলিশের বুদ্ধিমত্তায় জীবন ফিরে পেলেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) কাশিমপুর থানার ডিউটি অফিসারের মোবাইল ফোনে ২২ মার্চ ২০২০ তারিখ রবিবার অনুমান ১.০০ ঘটিকার সময় কাশিমপুর থানার সারদাগঞ্জ ৪নং ওয়ার্ড (জামাল কাজীর বাড়ীর ভাড়াটিয়া) মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের অজ্ঞাত কারনে মৃত্যুর সংবাদ আসে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে কাশিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব আকবর আলী খান সাহেবের নির্দেশনায় থানা এলাকায় কিলো-৩ ডিউটিরত এসআই মোহাম্মদ মাহাবুব সঙ্গীয় ফোর্সসহ তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে হাজির হন।

স্হানীয় লোকজনের সহায়তায় এসআই মোহাম্মদ মাহাবুব বাড়ীর মেইন কেচি গেইটের তালা ভাঙ্গিয়ে জাহাঙ্গীর আলমের রুমের দরজা ভাঙ্গিয়ে বাথরুম হইতে তাহার মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

উক্ত বিষয়টি সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোনাবাড়ী জোন) জনাব মোঃ আহসানুল হক ও অফিসার ইনচার্জ কাশিমপুর থানা জনাব আকবর আলী খান সাহেবকে অবহিত করে, তাহার মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য গাড়ীতে উঠানোর সময় হঠাৎ করে গলার মধ্যে গড়গড় শব্দ করে ওঠে।

তাৎক্ষনিক ভাবে এসআই মোহাম্মদ মাহাবুব জাহাঙ্গীর আলমের বুকে চাপ দিলে তাহার শ্বাস-প্রশ্বাস শুরু হয় এবং দ্রুতগতিতে তাকে পুলিশের গাড়ী যোগে শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যান।

প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত ডাক্তার জানান জাহাঙ্গীর আলম এর শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভাল। কাশিমপুর থানার এসআই মোহাম্মদ মাহাবুব এর উপস্থিত বুদ্ধিমত্তার কারনে জাহাঙ্গীর আলম জীবন ফিরে পেলেন।

জাহাঙ্গীর আলম গাজীপুর মহানগর টঙ্গী পশ্চিম থানার খাঁ-পাড়া এলাকার মোঃ আব্দুস সোবাহান এর ছেলে। তিনি বর্তমানে শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।