খালেদার রাতের বৈঠক শুভ লক্ষণ নয়: ওবাইদুল কাদের

Obaidul-Kaderনিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বৈঠকের বিষয়ে সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমার মনে হয় বিএনপির মধ্যে একটা হতাশা কাজ করছে। বার বার ডাক দিয়েও আন্দোলনে ব্যর্থ হচ্ছে। আন্দোলনে সাড়া না পেয়ে বিভিন্নভাবে অনেককে সংগঠিত করার পায়তারা করছে তারা। এটা কোনো শুভ লক্ষণ নয়।’রোববার দুপুরে কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাস এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি শ্রদ্ধার সঙ্গে বলছি, খালেদা জিয়া যেহেতু এখন সংসদে নেই, তাই তিনি এখন বিরোধী দলের অফিসিয়াল নেত্রী নন। তার সঙ্গে রাতের বেলা এ ধরনের বৈঠক সঠিক নয়।’ তিনি বলেন, ‘সরকারি চাকরিজীবীদের একটা আচরণ বিধি আছে। এই বৈঠকটি যদি তারা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিরোধী দলে থাকা অবস্থায় তার সঙ্গে করতেন তাহলেও কিন্তু আচরণ বিধি লংঘন হতো।’ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আন্দোলন নিয়ে সরকারের কোনো মাথা ব্যথা নেই। সরকারের বিরুদ্ধে এখন চক্রান্ত হচ্ছে। আন্তর্জাতিক উগ্রবাদী এবং তাদের এদেশীয় দোসররাও সক্রিয়। এ ব্যাপারে সরকারও সজাগ আছে। কাজেই আমরা বিশ্বাস করি, ইনশাল্লাহ জনগণ আমাদের সহযোগিতা করবে। তারা সহিংসতা চায় না, সন্ত্রাস চায় না, নাশকতা চায় না।’ বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘যদি তারা জনগণকে নিয়ে আন্দোলন করতে পারে তাহলে সেটা ভিন্ন কথা। কিন্তু সহিংস পরিস্থিতি দেশের মানুষের কাম্য নয়। সহিংসতা তাদের (বিএনপিকে) বিপজ্জনক ভুলের দিকে ঠেলে দেবে।’
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পরিদর্শনকালে মহাসড়কে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মন্ত্রী। এ সময় তিনি কয়েকটি ইজিবাইকের ব্যাটারি খুলে নেয়ার নির্দেশও দেন।এ সময় কুমিল্লার জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জামান কল্লোল, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী জুনাইদ আহসান শিব্বী, কুমিল্লার পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তীসহ হাইওয়ে পুলিশ এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত