করোনা পরিস্থিতিতে এক মানবিক শিল্পপতির গল্প

করোনা ভাইরাসের কারনে দেশের বড় বড় শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালিকরা তাদের কর্মকর্তা শ্রমিকদের ছাটাই এর পাশাপাশি অর্ধেক বেতন দিচ্ছে এমন খবরই উঠে আসছে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায়। ল্যাব এইডের মালিক করোনায় হাপাতালে রোগী না মেলায় চাকুরেদের অর্ধেক বেতন দিয়েছে, কর্মচারী ছাটাই করেছে।

বকেয়া বেতন চাওয়ায় কানিজ গার্মেন্টসের মালিক ৮০ শ্রমিককে ছাটাই করেছে। এমন সংবাদে শ্রমিক কর্মচারিরা যখন উদ্বিগ্ন আর উৎকন্ঠার মধ্যে সময় অতিবাহিত করছেন তখন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।

নারায়ণগঞ্জের এসপি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুবোল চন্দ্র সাহা। তাঁর অধীনে চাকরী করে প্রায় তিন হাজার শ্রমিক। করোনার তিনি তাঁর প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মার্চ-এপ্রিল দুই মাসের অগ্রিম বেতন দিয়ে ২৬ মার্চ থেকে ৩৫ দিনের সাধারণ ছুটি দিয়েছেন।

অবস্থা স্বাভাবিক না হলে তিনি সবাইকে বিকাশে ঈদ বোনাস দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। শুধু তাই নয় পরিস্থিতি খারাপ হলে, প্রয়োজনে সবার ছুটি বাড়িয়ে দেবেন বলেছেন; এবং চাকরি নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে না করেছেন।

প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন করোনায় কারো চাকুরি হারানোর কোন ভয় নেই। তার কারখানায় আছে শ্রমবান্ধব পরিবেশ ও শ্রমিকদের জন্য বিভিন্ন ধরণের মানবিক সুবিধা। গার্মেন্টস মালিকরা শ্রমিকদের প্রতি তার কর্তব্য পালনের বিষয়টি ভাল ভাবে দেখেন না। কারণ এটি তাদের জন্য স্বস্তিকর নয়, অন্য শ্রমিকদের এমন সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয় বলে।

সুবোল সাহা ঋণ খেলাপী নন, তিনি সরকার ও ব্যাংক থেকে কোন সুবিধা নেননি। তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই। আজকের এই সংকটকালীন সময়ে তাঁর মত অন্যান্য শিল্পপতি রা মানবিক হবেন এমন প্রত্যাশা সবার। খবরটি ফেইসবুক থেকে পাওয়া।