ভাইরাসের বিরুদ্ধে মাস্ক ৯৭ শতাংশ সুরক্ষা দেয়

লড়াইটা পুরো মানব জাতির। এক করোনার দাপটে ফাঁকা হয়ে গেছে পৃথিবীর মানব জাতির প্রায় সব ব্যস্ততা। যে বিমানবন্দরগুলোতে রান ওয়েনে নামার অপেক্ষায় কিউতে উড়তে থাকতো শত প্লেন সেখানে এখন পায়রারা উড়ে বেড়ায় মনে সুখে।

আর আমরা ব্যস্ত করোনার ভয়ে মুখ লুকাতে মাস্কে৷ ভয়াবহ এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মাস্কের ব্যবহার করছি। কিন্তু জানেন কি এটি কীভাবে কাজ করে আর মাস্ক ব্যবহারের নিয়মগুলোই বা কি?

চিকিৎসকদের পরামর্শ হচ্ছে:

• ভাইরাসের বিরুদ্ধে মাস্ক ৯৭ শতাংশ সুরক্ষা দেয়

• ডিসপোজেবেল সার্জিক্যাল মাস্ক একবারই ব্যবহার করা যায়

• মাস্ক পরা বা খোলার সময় হাত হয় সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে

• স্যানিটাইজারও ব্যবহার করে জীবাণুমুক্ত করে নিতে পারেন

• মাস্ক ধরে বা অপরিষ্কার হাতে মুখ স্পর্শ করা যাবে না

• মাস্কটা মুখে ভালোভাবে পরতে হবে যেন মাস্ক ও নাক-মুখের ফাঁক দিয়ে ধুলাবালি বা জীবাণু ঢুকতে না পারে।

• মাস্ক রাখা চাই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন। কাপড়ের মাস্ক নিয়মিত ধুয়ে পরিষ্কার রাখতে হবে

• চাহিদা অনুযায়ী মাস্ক পাওয়া না গেলেও চিন্তার কিছু নেই৷ প্রয়োজন হলে মাস্কের বদলে বাড়িতে তৈরি ফেস কভারও কার্যকারী হবে

• ঘরোয়া মাস্ক ধুয়ে আপনি বারবার ব্যবহার করতে পারবেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঘরে মাস্ক তৈরির সব থেকে ভালো মেটেরিয়াল হল ভ্যাকুয়াম ক্লিনারে ব্যবহার হওয়া ব্যাগ৷ এটি ৮৬ শতাংশ কার্যকর৷ এরপরেই রয়েছে ডিস টাওয়েল যা ৭৩ শতাংশ কার্যকর৷ ৭০ শতাংশ কার্যকর আমাদের ঘরে ব্যবহারের সুতি কাপড়৷