বোয়ালখালীতে ৮ প্রতিষ্ঠানকে ৮৩ হাজার টাকা জরিমানা

বেলাল হোসেন: রমজান শুরু হওয়ার সাথে সাথে বিভিন্ন সুযোগ সন্ধানী ব্যবসায়ী ইচ্ছামত জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে দেয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব আছিয়া খাতুনের নির্দেশে বাজার মনিটরিং এ বের হয় সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী এর নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট, আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে ছিলেন ল্যাফটেনেন্ট নাকভির নেতৃত্বে ১৮ বীর ব্যাটেলিয়ন এর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যবৃন্দ, এস আই শরিফ এর নেতৃত্ব বোয়ালখালী থানা পুলিশ।

মোবাইল কোর্টটি উপজেলা সদর, ফুলতল বাজার, শাকপুরা বাজার সহ বিভিন্ন বড় বাজার সমূহ পরিদর্শন করেন।

এসময় মূল্য তালিকা না থাকা এবং অতি উচ্চ মূল্যে পন্য বিক্রয় করার প্রমান পাওয়ায় উপজেলা সদরের রেল লাইনের পার্শ্বস্থ আকবর স্টোরের মালিক জনাব আলী আকবর কে ৫০ হাজার টাকা, মূল্য তালিকা হালনাগাদ না থাকায় ও বিক্রয়ের সাথে মিল না থাকায় জে আই স্টোরের মালিক জনাব মোঃ আনোয়ারকে ৫ হাজার টাকা,  ক্রয়কৃত মূল্যের চেয়ে প্রায় ৫০% এরও বেশি দামে খেজুর বিক্রয়,ও মূল্য তালিকা না থাকায় উপজেলা পরিষদের সম্মুখের মোঃ শহীদুল আলমকে ১০ হাজার টাকা,  হালনাগাদ মূল্য তালিকা না থাকায় ফুলতল বাজারের সিরাজুল হককে ৫ হাজার টাকা, ১৫০ টাকায় ক্রয় করে ২৭০ টাকা দরে আদা বিক্রয় করায় ফুলতল বাজারের আব্দুল মান্নানকে ৫ হাজার টাকা, মূল্য তালিকার সাথে ক্রেতাদের ক্রয় রশিদের ভিন্নতা থাকায় শাকপুরা বাজারের শেখ আহাম্মদকে ২ হাজার, বাবুল মাহাজনকে ৩ হাজার টাকা, মহরম আলীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মোবাইল কোর্ট চলাকালীন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী বাজার কমিটিকে পবিত্র মাহে রমজান ও দেশে চলমান করোনা দুর্যোগ কালীন সময় পন্য ক্রয় মূল্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বিক্রয় ও সার্বক্ষণিক মূল্য তালিকা প্রদর্শন করার জন্য অনুরোধ করেন।