মেয়র নাছিরের হাতে ১০ হাজার মাস্ক ও ৪০০ পিপিই হস্তান্তর

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের হাতে ১০ হাজার মাস্ক ও ৪০০ পিপিই হস্তান্তর করেছে চায়না জিমেন সেং ওহাং টুরিজম কোম্পানি লিমিটেডের পক্ষে লায়ন্স ক্লাব নেতৃবৃন্দ।

মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) বিকেলে নগরের টাইগারপাসের চসিক নগর ভবনে এসব সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়।

এসময় প্যানেল মেয়র ড. নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামশুদ্দোহা, মুক্তিযোদ্ধা মো. এনামুল হক চৌধুরী, জিএম মো. নাসির উদ্দীন, ম্যানেজার সোহরাব হোসেন, চসিক প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মো. শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদিপ বসাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র জিমেন সেং ওহাং টুরিজম কোম্পানি লিমিটেডকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সর্ব প্রথম সুরক্ষা দরকার সেবা প্রদানকারী ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও যারা করোনা রোগীর সংস্পর্শে যায়।

এ জন্য মাস্ক ও পিপিই অত্যন্ত জরুরি, যার সংকট এখন পৃথিবীময়। করপোরেট হাউসগুলো এভাবে এগিয়ে আসলে করোনা রোগীর সেবা সহজতর হবে।

তিনি বলেন, এই অদৃশ্য সংক্রমণ রোগ থেকে বাঁচার একমাত্র উপয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনা মেনে চলা। এ মহামারীতে নিজেকে রক্ষা করার মাধ্যমেই পরিবার, সমাজ ও দেশ রক্ষা করা সম্ভব।

তিনি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে করোনামুক্ত থাকতে ঘরে অবস্থানের আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ রমজান মাসে কোনো মানুষ যাতে অনাহারে না থাকে সে ব্যাপারে আমাদের মানবিকতাকে অগ্রসর করে কাজ করতে হবে।

তিনি ত্রাণ প্রাপ্তি নিশ্চিতে ওয়ার্ড পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিদের তৈরি তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে নগরবাসীকে পরামর্শ দেন।

মেয়র করোনা সংকট কালীন সময়ে জীবন ও জীবিকা দুটোকে রক্ষায় সকলকে সমন্বয় সাধনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।