আনোয়ারার পীরখাইনে দুই বাড়ির মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ

আনোয়ারা প্রতিনিধি: আনোয়ারা উপজেলার ১০নং হাইলধর ইউনিয়নের পীরখাইন গ্রামে স্কুল মাঠে আড্ডা দেওয়া কে কেন্দ্র করে শনিবার দুপুর থেকে দুই বাড়ির মধ্যে দফায় দফায় বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের ১১জন আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) দুই পক্ষ আবারো সংঘর্ষে লিপ্ত হলে পরিস্থিতি অবনতি হয়। পরে পুলিশ এসে লাটিপিটা করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। সংঘর্ষে জড়ানো কাউকে এখনো পর্যন্ত পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি বলে জানা গেছে।

গত চার দিন ধরে চলে আসা এই সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কম পক্ষে ১১জন আহত হয়।

আহতদের মধ্যে ছিল মোঃ শফি,মোঃ আনিছ,মোঃ মালেক,মোঃ জিহান (২৮), মনজুর, ফরহাদ, তৌহিদ, ইদ্রিস(৩০) মান্নান(৪২), নাজিম তাহের(৪৫) সহ আরো বেশ কয়েকজন। এদের মধ্যে ইদ্রিস কে গুরুতরআহত অবস্থায় (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়,গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে আড্ডা দেওয়ার মাঝে পীরখাইন গ্রামের মধ্যম পাড়ার ছাত্রলীগ নেতা সায়েম ও পূর্ব পাড়ার ছাত্রলীগ নেতা জিহানের মধ্যে একে অপরের বিরুদ্ধে মাদক সেবনের অভিযোগ তুলে কথা কাটাকাটি হয়। এর মাঝে দু’জনের হাতাহাতি হলে এক পর্যায়ে পরিস্থিতি সংঘর্ষে রূপ নেয়। পরে সংঘর্ষের এক পর্যায়ে মধ্যম পাড়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্রসহ লাটিসোটা নিয়ে এগিয়ে আসলে দুই বাড়ীর মধ্যে সংঘর্ষ রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

এই বিষয়ে আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বলেন,খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। ফের সংঘর্ষে জড়াতে না পারে তার জন্য পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে পুরো গ্রাম জুড়ে থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে।