একই দিনে করোনায় মারা গেলেন পুলিশের দুই সদস্য

এবার একই দিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করলেন মোখলেছুর রহমার ও আল মামনুর রশীদ নামের পুলিশের দুই সদস্য।

পুলিশের এই দুই সদস্যের মৃত্যুতে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ( আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এর কমিশনার মোঃ শফিকুল ইসলাম ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) এর কমিশনার মোঃ মাহবুবর রহমান গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ( ডিএমপি’র) নায়েক আল মামনুর রশীদ। এবং একই দিনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অধীনে সদর কোর্টে কর্মরত মোখলেছুর রহমান নামে আরেকজন পুলিশ কনস্টেবল। এ নিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ পুলিশের মোট ১১ সদস্য মারা যান বলে জানিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেন, পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া) মো. সোহেল রানা।

মোঃ সোহেল রানা জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ১১ পুলিশ সদস্যদের মধ্যে আট জন ঢাকা মহানগর পুলিশের সদস্য। অন্য দুই জন চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের সদস্য। সর্বশেষ নিহত আল মামুনুর রশীদ ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) পরিবহন বিভাগে কর্মরত ছিলেন।

এ পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, প্রয়াত আল মামুনুর রশীদের গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি থানায়। তিনি স্ত্রী ও দুই কন্যা রেখে গেছেন। আর প্রয়াত মোখলেছুর রহমানের বাড়ি চাঁদপুরের শাহরাস্তি থানার টামটা গ্রামে। তিনি স্ত্রী, তিন কন্যা ও এক পুত্র রেখে গেছেন।

এদিকে প্রতিদিনই পুলিশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে বৃহস্পতিবার (২১ মে) পর্যন্ত সারাদেশে মোট তিন হাজার ২৩৫ জন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ঢাকা মহানগর পুলিশেই আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ২৭৭ জন। এদের মধ্যে ৫৬৯ জন পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে আবারও কাজে যোগ দিয়েছেন।

এই দুই পুলিশ সদস্যের মৃত্যুতে ঢাকা মেটপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) ও চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সহ গভীর ভাবে শোকাহত এবং তাদের শোকার্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান বাংলাদেশ পুলিশ পরিবারের সকল সদস্য।