শতভাগ অ্যান্টিবডি তৈরির দাবি সিনোফার্মের বিজ্ঞানীদের

করোনা ভ্যাকসিন তৈরিতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে একশোটিরও বেশি করোনা প্রতিষেধক নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। তার মধ্যে অন্তত ১২টি প্রতিষেধকের হিউম্যান ট্রায়াল চলছে। করোনার চিকিৎসায় তিনটি প্রতিষেধকের বাজারে আসা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। এরই মধ্যে আশা জাগাল সিনোফার্মের বিজ্ঞানীদের সাম্প্রতিক দাবি।

সিনোফার্মের বিজ্ঞানীদের দাবি, তাঁদের তৈরি প্রতিষেধকের হিউম্যান ট্রায়ালে অভূতপূর্ব ফল মিলেছে। তাঁদের দাবি, এই প্রতিষেধক করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ১০০ শতাংশ সক্রিয় অ্যান্টিবডি তৈরিতে সক্ষম! এ পর্যন্ত ১,২২০ জন স্বেচ্ছাসেবকের উপর দু’দফায় পরীক্ষামূলক ভাবে এই প্রতিষেধক প্রয়োগ করে দেখার পর এমনই দাবি করেছেন এই চিনা ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থার বিজ্ঞানীরা।

সংস্থা জানিয়েছে, ১২ এপ্রিল থেকে ১,২২০ জন স্বেচ্ছাসেবকের উপর তাঁদের তৈরি করোনা প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেন বিজ্ঞানীরা। ২৩ জুন থেকে এই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু করার কথা জানিয়েছিল বেজিংয়ের এই সংস্থা।

সোমবার সিনোফার্মের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই চীনা সেনার উপর এই টিকার প্রয়োগের অনুমতি মিলিছে। পাশাপাশি কানাডাতেও এই টিকার ট্রায়াল চালানো হবে। প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে সাফল্যের পর তৃতীয় পর্যায়ে আরও বড় সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবকের ওপর এই টিকার কার্যকারিতা পরীক্ষা করে দেখে নিতে চাইছেন সিনোফার্মের বিজ্ঞানীরা।