মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০১-০৮-২০১৪ Time:৮:১২ অপরাহ্ণ


ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বাস-ট্রেন সংঘর্ষে শিশু ও মহিলা সহ  ১১ জন নিহত ও কমপক্ষে ৫০ জন আহত হয়েছে। শুক্রবার ভোর পৌনে চারটার দিকে উপজেলার বারোবাজার রেল ক্রসিংয়ে দূর্ঘটনাটি ঘটে।
আহতদেরকে ঝিনাইদহ ও যশোর, কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খুলনার সাথে সারা দেশের ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

পরিচয় পাওয়া  নিহতরা হলেন সুধীর কুমার (৪০), বিপ্লব বিশ্বাস (২৫), সুবল কুমার (২২), কৌশিক কুমার (৮), সুজয় বিশ্বাস (৩০), কৃষ্ণা রানী (৩০), বন্যা বিশ্বাস ( ৩৫) ও সঞ্জয় বিশ্বাস (৩৪)।

ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক শফিকুল ইসলাম জানান, সৈয়দপুর থেকে ছেড়ে আসা খুলনাগামী সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেন ভোর পৌনে ৪ টার দিকে বারোবাজার রেলস্টেশন পার হচ্ছিল। এ সময় বরযাত্রীবাহি একটি বাস রেল লাইন ক্রস করতে গেলে ট্রেনটির ধাক্কায় বাসটি চুর্নবিচুর্ন হয়ে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে গিয়ে থামে।

খবর পেয়ে স্থানীয় জনতা দমকল বাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা উদ্ধার কাজ শুরু করে। তারা ঘটনাস্থল থেকে শিশু ও নারী সহ ১১ জনের লাশ উদ্ধার করে। আহত প্রায় অর্ধশত আহত বরযাত্র কে ঝিনাইদহ ও যশোর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশংকাজনক।

স্থানীয় সাকো মোথনপুর গ্রাম থেকে বিয়ে করে বরযাত্রীরা জেলার শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি গ্রামে ফিরছিল। খুলনার সাথে সারা দেশে ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

তিনি আরো জানান, খুলনা থেকে রিলিফ ট্রেন এসে উদ্ধার কাজ শুরু করেছে।

সার্কেল এসপি জাহিদুল ইসলাম জানান, গেট ম্যানের কর্তব্যের অবহলোর কারণেই এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।