নোয়াখালীতে নিহত দুজন যুবদল ও শিবিরকর্মী

96964_1নিজস্ব প্রতিবেদক: নোয়াখালীর বাণিজ্যিক শহর চৌমুহনীতে পুলিশ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষে যুবদল ও ছাত্রশিবিরের দুই কর্মী নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন অন্তত ৩০ জন।পুলিশের গুলিতে নিহত দুজন যুবদল কর্মী মিজানুর রহমান রুবেল এবং শিবিরকর্মী মহসীন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।
বুধবার বিকেল ৫টার দিকে অবরোধের সমর্থনে চৌমুহনী শহরে মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অবরোধ সমর্থনে বিকেলে চৌমুহনী পূর্ব বাজার থেকে বিএনপির নেতৃত্বে ২০ দলের কয়েক হাজার নেতাকর্মী একত্রিত হয়ে মিছিল বের করে। মিছিলটি রেলস্টেশন এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয়।
প্রথমে পুলিশ সংখ্যায় কম থাকায় তাদের ধাওয়া দেয় বিক্ষোভকারীরা। এ সময় তারা বাজারের ৩০/৩৫টি দোকানে ভাঙচুর এবং তিনটি মোটরসাইকেল ও দুটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় আগুন দেয়।
পরে, অতিরিক্ত পুলিশ এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা এসে ২০ দলের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশের গুলিতে যুবদল ও ছাত্রশিবিরের এই দুই কর্মী নিহত হন। তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন আরো ৩০ জন।
এদিকে, পুলিশের গুলিতে দুই কর্মী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার নোয়াখালী জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে ২০-দলীয় জোট।সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করে নোয়াখালী পুলিশ সুপার ইলয়াছ শরীফ জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়েছে পুলিশ।