ভাষা সৈনিক ৬ দফা আন্দোলনের নায়ক আবদুল্লাহ আল-হারুনকে মরণোত্তর ২১শে পদকে ভূষিত করার দাবী

pbনিজস্ব প্রতিবেদক: শুক্রবার বিকাল ৪টায় প্রবাসী ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে ও দেশের বিরাজমান অস্থিতিশীলতা ও হরতালের নামে নৈরাজ-নাশকতার প্রতিবাদে এক আলোচনা সভা চেরাগী পাহাড়স্থ বঙ্গবন্ধু ভবনে সংগঠনের স্থায়ী কার্যালয়ে প্রবাসী ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক এস.এম. দিদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে ভাষা শহীদদের স্মরণে ও দেশে বিরাজমান নাশকতার শিকারে নিহত ৫০জন মানুষের স্মরণে দাঁড়িয়ে ১(এক) মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। মো. আবদুল মান্নান খানের পরিচালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য ও প্রত্যয়৭১ এর সভাপতি সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেত্রী, মহিলা চেম্বার অব কর্মাসের ডাইরেক্টর ও প্রত্যয়৭১ এর সাধারণ সম্পাদক শামীমা হারুণ লুবনা, প্রত্যয় ৭১ এর সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম. ফরহাদ আলী, প্রধান বক্তা ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কামাল হোসেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন মো. শামসুল আলম, নগর যুবলীগ নেতা সিজার বড়–য়া, এস.এ করিম, বহত্তর চট্টগ্রাম উন্নয়ন পরিষদের সহ-সভাপতি কামাল উদ্দিন, আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান এর সাংগঠনিক সম্পাদক সুরঞ্জিত সৈকত। বক্তরা বলেন, মহান মাতৃভাষা দিবসে আমাদের শপথ হউক স্বাধীনতা বিরোধী তথা বিএনপি-জামায়াতকে রুখে দাঁড়াতে সকল প্রবাসীরা ঐক্যবদ্ধ হউক। গত একমাসে রাজনৈতিক সংহিসতায় নিহত ৫০ জন মানুষের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়। সেই সাথে চট্টলার ভাষা সৈনিক ৬ দফা আন্দোলনের রূপকার ১৯৫২ সালে গঠিত সর্বদলীয় ছাত্রসংগ্রামের পরিষদের আহ্বায়ক ও সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের সদস্য আবদুল্লাহ আল-হারুনকে তাঁর জীবনের বর্ণিল রাজনৈতির ত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ একুশে পদকে ভূষিত করার জোর দাবী জানানো হয়। যাতে এ রকম স্মরণীয় ব্যক্তিকে বিস্মৃতির আড়ালে আমাদের না হারাতে হয়।