সুন্দরী গৃহকর্মী চায় না সৌদি নারীরা

imagesনিজস্ব প্রতিবেদক: সৌদি আরবের নারীরা তাদের সংসারে গৃহপরিচারিকা হিসেবে সুন্দর নারীদের দেখতে চান না।সৌদি আরবের রিক্রুটিং এজেন্সিগুলো বলছে সৌদি গৃহবধূরা এখন আগে থেকেই সম্ভাব্য গৃহপরিচারিকার ছবি দেখতে চাইছেন। বিশেষ করে যেসব গৃহপরিচারিকা মরক্কো ও চিলি থেকে আসছেন।সুন্দরী গৃহপরিচারিকা চান না এমন কয়েকজন নারীর সঙ্গে কথা বলে সৌদি আরবের একটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য তুলে ধরা হয়।প্রতিবেদনে গৃহবধূর জানান, এসব দেশের সুন্দরী নারীদের তারা গৃহপরিচারিকা হিসেবে চাননা, কারণ তাদের ধারণা সুন্দরী কর্মচারী পরিবারের মধ্যে সমস্যা সৃষ্টি করতে পারেন।জেদ্দার একটি রিক্রুটিং কোম্পানির পরিচালক ইদ আবু ফাহাদ ওই সংবাদপত্রটিকে বলেন, কিছু গৃহবধূ আমাদের সাথে যোগাযোগ করে বলেছেন যদি তাদের স্বামীরা মরক্কো বা চিলি থেকে গৃহপরিচারিকা চায় তাহলে ওইসব গৃহকর্মীদের পরিবারে গ্রহণের আগে তারা অবশ্যই দেখে নেবেন। এ ক্ষেত্রে তাদর প্রধান শর্ত হলো ওই গৃহকর্মীদের সুন্দরী হওয়া যাবে না।সৌদি আরবে বিদেশি কর্মী নেয়া অনেক সময় ও অর্থের বিষয়। ভিসা ও অন্যান্য প্রক্রিয়া শেষ করতে প্রায় ছয় মাস লেগে যায়। চিলি থেকে কর্মী আনার ক্ষেত্রে ২২ হাজার রিয়ালের মতো খরচ করতে হয়।উপসাগরীয় অঞ্চলের বিদেশি গৃহকর্মীর অধিকারের বিষয়টি একটি বড় ইস্যু।তবে আরব নিউজ বলেছে, সেখানে অন্য দেশ থেকে যাওয়া গৃহপরিচারিকা ও গাড়ির চালকদের মূল নিয়োগকর্তার কাছ থেকে পালিয়ে যাওয়ার প্রবণতা রয়েছে।কয়েকটি দেশ সৌদি আরবে নারী কর্মীদের সাথে আচরণের বিষয়ে নানা অভিযোগ তুলছে। ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি তার দেশ থেকে নারী কর্মী পাঠানো বন্ধের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন।