নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে হবে: জেলা প্রশাসক

mdচট্টগ্রাম অফিস: বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা ইউনিট কমান্ড এর উদ্যোগে জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় জেলার প্রতিটি উপজেলায় মুক্তিযুদ্ধ জানো, বাংলাদেশকে জানো স্লোগানে স্বাধীনতা ভিত্তিক স্কুল কুইজ প্রতিযোগীতা, চিত্রাঙ্কন ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ৭ মার্চ সকাল ১০টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে ফুলের শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা কমান্ডার মো: সাহাবউদ্দিন এর সভাপতিত্বে শিল্পকলা একাডেমী আল্চোনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক জনাব মেজবাহ উদ্দিন, বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড শাহ আলম, মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্রের চেয়াম্যান ডা: মাহফুজুর রহমান,চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব এর যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা সহ সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালনের মধ্যে দিয়ে সভার কাজ শুরু হয়।প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে বলেন যে, আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ। ১৯৭১ সালের এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিরস্ত্র বাঙ্গালী জাতিকে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ার দিক নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এই দিনটি বাঙ্গালী জাতির কাছে একটি ঐতিহাসিক দিন। ডেপুটি কমান্ডার মাহববুল আলম এর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ডেপুটি কমান্ডার এ কে এম সরোয়ার কামাল, সাংগঠনিক কমান্ডার জামান উল্লাহ, প্রচার কমান্ডার মো: নাছির উদ্দিন, মো: এ কে এম আলাউদ্দিন, বদরুজ্জামান, আবদুর রাজ্জাক, বোরহান উদ্দিন,রশিদ সিদ্দিকি কামাল, আবদুল জলিল চৌধুরী, সেকান্দার হোসেন চৌধুরী, একরামুল হক চৌধুরী, উপজেলা কমান্ডারের মধ্যে কবির আহম্মেদ, আবু তাহের, আবু জাফর চৌধুরী, আলীম উল্লাহ, সুভাস আচার্য্য, নুরুল আলম, খায়রুল বশর, নুর আলম মাস্টার, হারুন মিয়া, আকতার আহম্মদ সিদ্দিকী। প্রতিটি উপজেলায় ১৬টি স্কুল নিয়ে স্বাধীনতার স্কুল কুইজ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি উপজেলার বিজয়ী স্কুল ও মহানগর স্কুলের সমন্বয়ে আগামী ২১শে মার্চ চূড়ান্ত প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। এছাড়াও ২০শে মার্চ সকাল ৯টায় শিল্পকলায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা এবং উপজেলার বিভিন্ন স্কুলে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠিত হবে।