মর্নিংসান২৪ডটকম Date:০৩-০৫-২০১৫ Time:৩:১৫ অপরাহ্ণ


imagesনজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, পেছনে দাঁড়িয়ে আছে ইতিহাস-ঐতিহ্যের ১৫২ বছর। ১৮৬৩ সালের ২২ জুন বৃটিশ শাসনামলে গঠিত হয় চট্টগ্রাম পৌরসভা। এর দীর্ঘকাল পর ১৯৮২ সালে বাংলাদেশ আমলে এটি পৌর করপোরেশনে রূপান্তরিত হয়। ১৯৮৯ সালে চট্টগ্রাম নগরবাসীর আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক হিসাবে রূপান্তরিত হয় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে। এ পর্যন্ত এখানে গত প্রায় ১৫২ বছরে ৭ জন বৃটিশ নাগরিকসহ মোট ১৯ জন প্রশাসক, ৩ জন চেয়ারম্যান-প্রশাসক, একজন চেয়ারম্যান এবং ৫ জন মেয়র বিভিন্ন মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এদের মধ্যে কেউ কেউ ছিলেন নির্বাচিত, আবার অনেকেই ছিলেন সরকার কর্তৃক নিযুক্ত। ঐতিহ্যের এই প্রতিষ্ঠানটিতে ১টি মেয়র পদ, ৪১টি ওয়ার্ডের জন্য ৪১ জন কাউন্সিলর পদ এবং ১৪টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর গত ২৮ এপ্রিল থেকে দায়িত্ব পালন করবেন।
চট্টগ্রাম পৌরসভার প্রথম প্রশাসক ছিলেন জে.ডি ওয়ার্ড (১৮৬৩-৬৭)। তারপর আরো ৬ জন বৃটিশ কর্মকর্তা এই পৌরসভায় বিভিন্ন মেয়াদে প্রশাসক নিযুক্ত ছিলেন। এখানে ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন পটিয়ার তত্কালীন ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সদস্য কামিনীকুমার দাস বিএল, এমবিই (১৯১৫-১৮)। চট্টগ্রাম পৌরসভার প্রথম বাঙালি ও মনোনীত বেসরকারি চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন খান বাহাদুর আমান আলী (১৯১৬-১৯১৯)। চট্টগ্রাম পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন খান বাহাদুর আবদুচ ছত্তার (১৯১৯-২১)। ১৯১৮ সালে চট্টগ্রাম পৌরসভার কমিশনার এবং ১৯২১ সালে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন নূর আহমদ (১৯২১-১৯৫৪)। তিনি একটানা তেত্রিশ বছর চট্টগ্রাম পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ১৯২৭ সালে উপমহাদেশে প্রথম চট্টগ্রাম পৌরসভার মাধ্যমে বাধ্যতামূলক অবৈতনিক প্রাথমিক শিক্ষা প্রবর্তন করেন। তিনি ছিলেন একজন বড়মাপের সমাজসেবী ও তুখোড় পার্লামেন্টারিয়ান। শেখ রফিউদ্দিন আহমদ সিদ্দিকী চট্টগ্রাম পৌরসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন ১৯৫৪ সালে। ও.আর নিজাম চট্টগ্রাম পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১৯৬০ সাল থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত।ফজল করিম চট্টগ্রাম পৌরসভার চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১৯৭৩ সাল থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত। ১৯৮২ সাল থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত তিনি চট্টগ্রাম পৌরসভার উপ-প্রশাসক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া সিরাজুল হক মিয়া ১৯৭৩ সালে, আগ্রাবাদ ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নজির আহমদ চৌধুরী টানা ২২ বছর চট্টগ্রাম পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। নূর আহমদ চেয়ারম্যানের সহযোগী হিসাবে শহরবাসীর সেবায় তিনি আন্তরিকতার সাথে কাজ করে গিয়ে চট্টগ্রামবাসীর মনে চিরস্মরণীয় হয়ে আছেন।
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মুফিজুর রহমান চৌধুরী প্রশাসক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১৯৮২ সাল থেকে ১৯৮৬ সাল পর্যন্ত। এছাড়াও কমিশনার, উপ-প্রশাসক ও ডেপুটি মেয়র হিসাবে আবু নাছের চৌধুরী ১৯৮২ থেকে ১৯৯১, প্রশাসক হিসাবে ব্যারিস্টার সুলতান আহমদ চৌধুরী ১৯৮৬-৮৭ সাল, সেকান্দর হোসেন মিয়া ১৯৮৬ সালে ভারপ্রাপ্ত প্রশাসক এবং ১৯৮৭ সালে প্রশাসক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। এখানে এস.এম ফারুক উপ-প্রশাসক এবং রাজনীতিবিদ দস্তগীর চৌধুরী উপ-প্রশাসক ও ডেপুটি মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।
চট্টগ্রাম পৌর করপোরেশনের প্রশাসক হিসাবে মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী দায়িত্ব পালন করেন ১৯৮৮ সাল থেকে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত। পৌর করপোরেশনের মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১৯৮৯ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত। তিনি ১৯৯০ সালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসাবেও কিছুকাল দায়িত্ব পালন করেন। বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১৯৯১ সাল থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত। জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে ১৯৯৪, ২০০০ এবং ২০০৫ সালে তিন-তিনবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে জনপ্রিয় ও সফল মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। ২০১০ সালে মেয়র নির্বাচিত হন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এম. মনজুর আলম। এবার ২০১৫ সালে নাগরিক কমিটির প্রার্থী হিসাবে মেয়র পদের জন্য দাঁড়িয়েছেন গত ২৮ এপ্রিল মেয়র নির্বাচিত হন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম নাছিরউদ্দিন।
নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের এবং সংরক্ষিত ১৪টি মহিলা কাউন্সিলর পদে সরকার দলীয় অধিকাংশ প্রার্থীরা যেভাবে হউক পাশ করেছেন ।