চা-কফি ছাড়াই চাঙ্গা হয়ে উঠুন

চা-কফি ছাড়াই চাঙ্গা হয়ে উঠুন
চা-কফি ছাড়াই চাঙ্গা হয়ে উঠুন

চট্টগ্রাম অফিস:
চা-কফি পান না করেই কী করে চাঙ্গা হয়ে উঠবেন। সকাল থেকেই খুব মন দিয়ে কাজ করছেন। হঠাৎ করেই দুপুরের খাবারের পর শরীরটা যেন একেবারে ছেড়ে দেয়, কোনো কাজই করতে ইচ্ছে হয় না।

চা-কফি পান করাতে দোষের কিছু নেই। কিন্তু চা পান করলে সবসময় ঘুম তাড়ানো যায় না। চা-কফির সাথে প্রচুর দুধ-চিনি দিয়ে পান করলে আসলে উপকারের বদলে ক্ষতিই বেশি হয়। স্বাস্থ্য সচেতন মানুষেরা ক্লান্তি দূর করে চাঙ্গা হয়ে উঠতে জেনে রাখতে পারেন এসব ট্রিক।

১) দেখুন একটি ভাইরাল ভিডিও

কাজ করতে করতে একঘেয়েমি এসে গেলে আপনি কাজ থামিয়ে একটা ভাইরাল ভিডিও দেখে নিতে পারেন। এটুকু বিনোদন কাজের তেমন কোনো ক্ষতি করবে না আবার এই ঝিম ধরা ভাবটাকেও সরিয়ে দেবে। যদি ক্যান্ডি ক্রাশ খেলার অভ্যাস থাকে তাহলে এই খেলায় কয়েক মিনিট সময় কাটালেও ভালো লাগবে। তবে সাবধান থাকুন। বেশি সময় কাটাবেন না এর পেছনে।

২) গ্লাস ভরে পানি পান করুন

শরীরে পানির অভাব হলে মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলে সমস্যা হতে পারে। তাই কাজের ফাঁকে ফাঁকে যথেষ্ট পানি পান করুন।

৩) রোদে একটু হেঁটে আসুন

অফিস থেকে বের হয়ে রোদে একটু হেঁটে আসুন কিছুদুর। এতে হার্ট রেট বাড়বে। আর রোদ গায়ে লাগলেও আগের চাইতে চাঙ্গা হয়ে উঠবেন আপনি।

৪) লাঞ্চে ভারী কিছু খাবেন না

বেশি চিনি আছে বা বেশি কার্বোহাইড্রেট আছে এমন খাবার লাঞ্চে খেলে খুব দ্রুত ক্লান্তি জেঁকে বসবে আপনার ওপরে। আবার বেশি ফ্যাট আছে এমন খাবার খেলেও আসবে ঝিমুনি। এর বদলে খান ব্যালান্সড কোনো খাবার। যাতে সমান পরিমাণে প্রোটিন আর কার্বোহাইড্রেট আছে। আর টুকটাক খাবারও খেতে পারেন কিছুক্ষণ পরে পরেই যাতে রক্তের সুগার লেভেল ঠিক থাকে।

৫) বিকেলের দিকে খান ছোট্ট একটা ক্যান্ডি

লাঞ্চের মোটামুটি তিন ঘন্টা পরে রক্তের গ্লুকোজ লেভেল খুব কমে যায় ফলে এ সময়ে কিছু খাওয়ার দরকার পরে। এ সময়ে ভারী কিছু না খেয়ে মুখে পুরে দিন ছোট একটি ক্যান্ডি বা একটি মিন্ট। এটাই যথেষ্ট হবে ক্লান্তি কাটাতে।

এতো কিছুর পরেও যদি নিয়মিত দুপুরের দিকে আপনার ঝিমুনি আসতে থাকে তাহলে ডাক্তারের সাথে একটু কথা বলে নিন। আপনার হয়তো ঘুম হচ্ছে না যথেষ্ট, যার ফলে এমন ঘুম পাচ্ছে। অথবা এমন ক্লান্তি কোনো রোগেরও লক্ষণ হতে পারে।