ফাঁকা মাঠ, চবি ছাত্রদলের শোডাউন

ফাঁকা মাঠ, চবি ছাত্রদলের শোডাউন
ফাঁকা মাঠ, চবি ছাত্রদলের শোডাউন
ফাঁকা মাঠ, চবি ছাত্রদলের শোডাউন

চট্টগ্রাম অফিস: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ২ নভেম্বর ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের পর থেকে অনেকেই গ্রেপ্তার হয়েছে আবার বেশিরভাগই রয়েছে পলাতক। ফলে ক্যাম্পাস এখন অনেকটাই ফাঁকা। আর এ সুযোগটাই কাজে লাগাতে চায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের নেতারা।

রোববার ফাঁকা ক্যাম্পাসে সংগঠনের নেতাকর্মীরা একটি শোডাউন করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-২০১৬ সেশনের ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ছাত্রদল নেতা কে আলম ও আব্দুল্লাহ আল নোমানের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাসে এ শোডাউন করে। শোডাউনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বর থেকে শুরু হয়ে ড. ইউনূস ভবন, নিরাপত্তা দপ্তর হয়ে একে খান আইন অনুষদ ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

শোডাউনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চবি ছাত্রদল নেতা রুকন উদ্দিন, আবু বক্কর রাজু, আব্দুর রহীম, সাইফুল, মামুন, রাশেদ, সাকিব, ইমতিয়াজ ইকরাম, মোহাম্মদ মহিউদ্দীন, ঈসমাইল হোসেন, হুমায়ন, মিজবাহ, সফিউল্লাহ, মোরশেদসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের অভ্যর্থনা জানানোকে কেন্দ্র করে গত ২ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে হাটহাজারি থানার ওসিসহ প্রায় অর্ধশতাধিক আহত হয়। এ ঘটনার পর ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রিত দুটি হল থেকে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় পুলিশ তিনটি মামলা দায়ের করে চবি থেকে গ্রেপ্তার ৩৮ নেতাকর্মীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে।