ভারতে ৭ শিশুসহ একই পরিবারের ১৪ জনকে হত্যা

 

 ভারতে ৭ শিশুসহ একই পরিবারের ১৪ জনকে হত্যা
ভারতে ৭ শিশুসহ একই পরিবারের ১৪ জনকে হত্যা

নিউজ ডেস্ক:
ভারতের মহারাষ্ট্রে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে সাত শিশুসহ একই পরিবারের ১৪ জনকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছে ঘাতক নিজেও।

রোববার সকালে মহারাষ্ট্রের তানে জেলার একটি বাড়িতে এ বর্বর হত্যাকাণ্ড ঘটে। নিহত ১৪ জনের মধ্যে সাত শিশু ছাড়াও ছয় নারী ছিলেন।

পুলিশের উদ্বৃতি দিয়ে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, সবাইকে খুনের আগে ওষুধ খাইয়ে অচেতন করা হয়েছিল। পরে ধারালো ছুরি দিয়ে নারী-শিশু সবাইকে গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে ঘাতক। নিহতদের মধ্যে রয়েছে সাত শিশু এবং ছয় নারী।

পুলিশ জানিয়েছে, বাড়ির ভেতরে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে থাকা একজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। ওই ব্যক্তির আনুমানিক বয়স হবে ৩২ বছর। ওই যুবকের হাতে একটি ছুরিও পাওয়া পাওয়া গেছে। পুলিশের ধারণা, ফাঁসির দড়িতে ঝুলে থাকা এ যুবকই ১৪ খুনে জড়িত।

সন্দেহভাজন এ ঘাতকের সঙ্গে নিহতদের সম্পর্ক রয়েছে কি না তা নিয়ে নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি। পুলিশের ধারণা, ওই পরিবারের সঙ্গে খুনির সম্পর্ক রয়েছে। পারিবারিক সম্পদ নিয়ে বিবাদের জের ধরেই নৃশংস এ হত্যাযজ্ঞ ঘটানো হয়েছে। এ নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।