আমরা দেশকে এগিয়ে নিতে চাই-শেখ হাসিনা

 

আমরা দেশকে এগিয়ে নিতে চাই-শেখ হাসিনা
আমরা দেশকে এগিয়ে নিতে চাই-শেখ হাসিনা

নিউজ ডেস্ক:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা দেশকে এগিয়ে নিতে চাই। আর সেই চিন্তা থেকেই আমরা যত্রতত্র শিল্প কলকারখানা গড়ে না তুলে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার কাজে হাত দিয়েছে। তবে সবকিছুই হতে হবে পরিকল্পিত। এ লক্ষ্যে আমরা নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছি।

আজ সকালে বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের ইছাখালীর চরে দেশের বৃহত্তম ইকোনমিক জোনসহ দেশের ১০টি অর্থনৈতিক জোনের উন্নয়ন কাজের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এসময় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, মন্ত্রীগণ, সংসদ সদস্যগণ এবং বিভিন্ন শিল্প উদ্যোক্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা কমপক্ষে ১০০টি অর্থনৈতিক জোন গড়ে তুলতে চাই। সবকিছুই হতে হবে পরিকল্পিত। আমাদের টর্গেট হচ্ছে, শিল্পকলকারখানা গড়ে তোলা, বাণিজ্য বৃদ্ধি, পণ্য বাজারজাত করা, রপ্তানি বৃদ্ধি। এসব মাথায় রেখে আমরা এগিয়ে যেতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ যাতে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয় সে বিষয়টি টার্গেটে রেখে কাজে করছে সরকার। আমাদের বন্দরগুলোর উন্নয়ন, আরও সমুদ্রবন্দর গড়ে তোলা, সমুদ্রসম্পদকে কাজে লাগানো, নদীগুলোকে সক্রিয় করতে হবে। এ জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। পরিবেশ ঠিক রেখেই শিল্প গড়ে তুলতে হবে।

চট্টগ্রাম নগরী থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে ১১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল। মিরসরাইয়ে এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১২২২টি শিল্পপ্লট তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে। এসব প্লটে বিভিন্ন শিল্প-কারখানা গড়ে উঠলে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষের নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ইকোনোমিক জোন (বেজা)।

পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সুইস টিপে অর্থনৈতিক জোনগুলোর উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন।

এর আগে চট্টগ্রামের মিরসরাই প্রান্তে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। মিরসরাইয়ে একোনমিক জোন গড়ে তোলার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মন্ত্রী। জবাবে প্রধানমন্ত্রী ওই এলাকায় অর্থনৈতিক জোন গড়ে তুলতে জমি দেয়ার জন্য এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানান।