সীতাকুন্ডে লরি চাপায় ইয়ার্ড শ্রমিক নিহত

সীতাকুন্ডে লরি চাপায় ইয়ার্ড শ্রমিক নিহত
সীতাকুন্ডে লরি চাপায় ইয়ার্ড শ্রমিক নিহত

নন্দন রায়, সীতাকুন্ড (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা :

সীতাকুন্ড উপজেলার বারআউলিয়া গামারীতল এলাকায় গতকাল সোমবার সকাল ৮টার সময় কবির ষ্টীল র্শীপ ইয়ার্ড সড়কে লোহার বিলেডবাহী লরি চাপায় একি ইয়ার্ডের সুমন (২৮) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। কবির স্টীল শিপ ইয়ার্ডের গেইটে এই ঘটনা ঘটে।

 স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার সকাল ৮টার সময় সীতাকুন্ড উপজেলার বার আউলিয়া ইউনিয়নের গামারীতল এলাকায় কবির স্টীল শিপ ইয়ার্ডের গেইট দিয়ে কাজে যোগদেওয়ার জন্য যাওয়ার সময় কবির স্টীল শিপ ইয়ার্ডের বিলেডবাহী লরি (ঢাকা মেট্রো ঢ ৮১-০৩১৭) দ্রুত গতিতে চাপা দিলে উক্ত ইয়ার্ডের কাটার হেলপার মো. সুমন (২৮) ঘটনারস্থলে নিহত হন। নিহত সুমন দণি সোনাইছড়ি (ঘোরামারা)  গামারীতল গ্রামের মো.সিরাজ মিয়ার পুত্র বলে জানা যায়। ঘটনার পর ইয়ার্ড কর্তৃপক্ষ নিহত ইয়ার্ড শ্রমিককে উদ্ধার না করে দুই ঘন্টা ফেলে রাখলে উত্তেজিত মহিলা ও পুরুষের শত শত গ্রামবাসী কবির ষ্টীল মিলে প্রতিবাদ করতে গেলে ইয়ার্ডের নিজস্ব সিকিউরিটিরা এলোপাথারি গুলি চালায়। এতে ৫ গ্রামবাসী গুলি বিদ্ধ হয়ে গুরুত্বর আহত হয়। তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় গ্রামবাসীরা আরো উত্তেজিত হয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানবাহন ভাংচুর করে প্রায় দুই ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। দুই ঘন্টা পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে মহাসড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেয় গ্রামবাসী।

 সীতাকুন্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসান ঘটনার সত্যতা স্বিকার করে বলেন, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। উক্ত ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।